ডেস্কটপ বা ল্যাপটপে ভয়েস টাইপিং করবেন কিভাবে?

Content Manager
0

সাধারণত লেখার কোন হার্ড কপি বা বই দেখে দেখে একটি দীর্ঘ বার্তা বা গুরুত্বপূর্ণ কিছু টাইপ করা খুব কঠিন এবং সময়সাপেক্ষ। বিশেষ করে যাঁরা ধীরে ধীরে টাইপ করেন, তাঁদের নানা সমস্যায় পড়তে হয়। কেননা অফিসে সময়মতো কাজ শেষ করতে না পারায় অনেক সময় বকা বকিও শুনতে হয়। কিন্তু আপনি কি জানেন, মুখে বলবেন আর অটোমেটিক লেখা হবে কম্পিউটারে? আজকের এই ইনফোটিতে আমরা আলোচনা করবো ডেস্কটপ বা ল্যাপটপে ভয়েস টাইপিং করবেন কিভাবে? 

স্মার্টফোনে গুগল অ্যাসিস্ট্যান্টের সাহায্যে আপনি সহজেই ভয়েস টাইপিং করতে পারেন যে কোন আন্তর্জাতিক ভাষায়। কিন্তু ল্যাপটপ বা কম্পিউটারেও একইভাবে লেখা যায় যা আমরা অনেকেই জানি না। তাই যারা জানেন না যে, কম্পিউটারে ভয়েস টাইপিং কিভাবে করবেন, তারা লেখাটি শেষ পর্যন্ত দেখতে পারেন।


ডেস্কটপ বা ল্যাপটপে ভয়েস টাইপিং করবেন কিভাবে?


কেন ভয়েস টাইপিং টুলস ব্যবহার করবেন?

হার্ড কপি বা বই দেখে কম্পিউটারে টাইপ করা খুবই কঠিন বা কারো কারো কাছে এটি বিরক্তিকর। যাদের কম্পিউটার টাইপিং স্লো, তাদের এই কাজটি করতে হয় অনেক কষ্টে। বেশিরভাগ লোকেরা টাইপিং এড়াতে চেষ্টা করে, কারণ এটি প্রায়শই সময় নষ্ট করে। ফলে অনেকেই টাইপিং সমস্যার সম্মুখীন হন এবং এতে অনেক সময় ব্যয় হয়। 

তাই এমন পরিস্থিতিতে আর চিন্তা করতে হবে না। কারণ এখন ভয়েস টাইপিং করে মিনিটে ঘণ্টার কাজ করা যায়।

গুগল অ্যাসিস্ট্যান্টের সাহায্যে স্মার্টফোনে যে কোনো কিছু টাইপ করা যায় সেভাবে ল্যাপটপ বা কম্পিউটারে ভয়েস টাইপিং করা যায়। ল্যাপটপ বা ডেস্কটপে ভয়েস টাইপ করা খুবই সহজ। এর মাধ্যমে যে কেউ তাদের মূল্যবান সময় বাঁচাতে পারে। 


মোবাইলে ভয়েস টাইপিং কিভাবে করবেন?

যারা স্মার্টফোন ব্যবহার করেন তারা ফোনে যে কোন টইপ হোক না কেন সহজেই ভয়েসের মাধ্যমে তা লিখতে পারেন। উপরেই আমরা বলেছি যে, গগুল এসিট্যান্ট এর মাধ্যমে যে কোন ভাষায় ভয়েস টাইপ করা যায় মোবাইল ফোনে।

এছাড়াও বাংলা কি বোর্ড ব্যবহার করেও ভয়েস টাইপ করতে পারেন। গুগল প্লে-স্টোরে বিভিন্ন কি-বোর্ড রয়েছে। বিভিন্ন ভাষার কি বোর্ড ব্যবহার করার চেয়ে গুগল কি-বোর্ড ব্যবহার করা ভালো। কেননা এই কি-বোর্ড যে কোন ভাষায় লিখা যায় সহজেই।

তারপরও অনেকেই বাংলা ভয়েস টাইপিং কি-বোর্ড, বাংলা ভয়েস সফ্টওয়ার, কম্পিউটার ভয়েস টাইপিং, বাংলা ভয়েস কিবোর্ড অনলাইনে সার্চ করে থাকেন। যাইহোক আমরা নিচে আলোচনা করবো কম্পিউটার বা ল্যাপটপে কিভাবে ভয়েস টাইপিং করা যায়।

আরো জানুন:

মোবাইলে ছবি বা ভিডিও ডিলিট হলে ফিরে পাবেন কিভাবে?

বিদ্যুৎ ছাড়া মোবাইল চার্জ দিবেন কিভাবে?

অজান্তে কেউ কল রেকর্ড করলে কিভাবে বুঝবেন?

ফেসবুক প্রোফেশনাল মোড কি? কিভাবে চালু করবেন?


ডেস্কটপ বা ল্যাপটপে ভয়েস টাইপিং করার উপায়

ল্যাপটপ বা কম্পিউটারে ভয়েস টাইপ করার বিভিন্ন উপায় রয়েছে। আপনি আপনার পছন্দের উপায়টি ব্যবহার করতে পারেন। যেমন- গগুল ডকস ব্যবহার করে ভয়েস টাইপ করা কিংবা ব্রাউজারে ভয়েস এক্সটেনশন ইন্সটল করে ভয়েস টাইপ করা ইত্যাদি। আপনি ভয়েস টাইপিং এক্সটেনশন লিখে সার্চ করলে বিভিন্ন পেইড ফ্রি এক্সটেনশন পেয়ে যাবেন।

আমরা এখানে গুগল ডকস ব্যবহার করে কিভাবে ভয়েস টাইপিং করবেন তা আলোচনা করছি। কেননা গুগল ডকস ব্যবহার করলে অনেক সুবিধা পাবেন। যেমন: যে কোন ভাষায় ভয়েস টাইপিং করা যায় একদম বিনামূল্যে অর্থাৎ এখানে ভয়েস টাইপ করতে আপনাকে কোন টাকা খরচ করা লাগবে না।

Google Docs ব্যবহার করে ভয়েস টাইপিং

1 - একটি ল্যাপটপ বা কম্পিউটারে ভয়েস টাইপিং করতে, প্রথমে Google Chrome ব্রাউজার খুলুন।

2 - এর পরে Google Docs অনুসন্ধান করুন এবং লগইন করুন।

3 - লগ ইন না করে ভয়েস টাইপিং করা যাবে না। আপনি আপনার জিমেইল দিয়ে লগইন করুন।

4 - লগ ইন করার পর, Create বাটনে ক্লিক করুন।

5 - এখানে Google ডক্সে ক্লিক করুন এবং OK অপশনে ক্লিক করুন। ভয়েস টাইপিং বিকল্প বেছে নিন বা একই সাথে ctrl+shift+s বোতাম টিপুন।

6 - এখানে বেশিরভাগ মানুষ কীবোর্ডের সাহায্যে টাইপ করে।

7 - ভয়েস টাইপিংয়ের জন্য একই সাথে ctrl+shift+s বোতাম টিপুন। ভয়েস টাইপ করার জন্য অনুমতি চাইলে অনুমতি দিয়ে দিন।

8 - ভয়েস অনুমতি দেওয়ার পরে, ভয়েস টাইপিং শুরু করা যেতে পারে।

9 - আপনি ভয়েস টাইপিং শুরু করার জন্য প্রস্তুত হলে, বাম মার্জিনে মাইক্রোফোন আইকনে ক্লিক করুন।
10 - কথা বলা শেষ হলে আবার মাইক্রোফোন আইকনে ক্লিক করুন।

এভাবে আপনি যত ইচ্ছা টাইপ করতে পারেন। আপনার লেখা গুগল ডকসে স্বয়ংক্রিয়ভাবে সেভ হতে থাকবে।


গুগল ডকসে ভাষা পরিবর্তন করবেন কিভাবে?

ভয়েস টাইপিং করার সময় এমন অনেক ফিচার পাওয়া যায়, যার সাহায্যে কয়েক ঘণ্টার কাজ মিনিটে শেষ করা যায়। এছাড়া এর মাধ্যমে যে কোন ভাষা বেছে নিতে পারবেন আপনার পছন্দ অনুযায়ী। 

গুগল ডকসে হিন্দি, ইংরেজি এবং আরও অনেক আন্তর্জাতিক ভাষা রয়েছে। এর জন্য বাম পাশের ভাষা অপশনে ক্লিক করুন। এখান থেকে যেকোনো ভাষা নির্বাচন করার পর সেটিতে ক্লিক করে OK করুন।

আপনি আপনার পছন্দের ভাষা নির্বাচন করে বাধাহীনভাবে টাইপ করুন।


শেষকথাঃ

আশাকরি ভয়েস টাইপিং কিভাবে করবেন বুঝতে পেরেছেন। আর আপনার কাছে এই ইনফোটি প্রয়োজনীয় মনে হলে শেয়ার করে নিজের ওয়ালে রেখে দিন প্রয়োজনের সময় যাতে নিজের ওয়াল থেকে সহজেই খুঁজে নিতে পারেন।

ইনফোটির অনুসন্ধান বিষয়গুলো হচ্ছে, কম্পিউটারে ভয়েস টাইপ কিভাবে করবেন, ভয়েস টাইপিং সফ্টওয়ার, মোবাইলে ভয়েস টাইপ কিভাবে করবেন, বাংলা ভয়েস টাইপিং কিবোর্ড, বাংলা ভয়েস টাইপিং কিবোর্ড , কম্পিউটারে ভয়েস টাইপিং, বাংলা ভয়েস সফটওয়্যার, বাংলা ভয়েস কিবোর্ড ডাউনলোড ইত্যাদি।


অন্যান্য ইনফো জানুন










একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ
একটি মন্তব্য পোস্ট করুন (0)


#buttons=(Accept !) #days=(20)

Our website uses cookies to enhance your experience. Learn More
Accept !