অনলাইনে ভ্যাট রেজিস্ট্রেশন (মূল্য সংযোজন কর) বা Business Identification Number (BIN) করবেন কিভাবে?

1

বড় কিংবা মাঝারি ধরণের ব্যবসার জন্য আপনাকে Business Identification Number বা BIN সার্টিফিকেট করতে হবে। বর্তমানে উৎপাদনশীল ও সেবা প্রদান ব্যবসার ক্ষেত্রে কর প্রদান করা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। এ ধরণের ব্যবসা যদি আপনার থাকে তাহলে অবশ্যই ভ্যাট রেজিস্ট্রেশন (মূল্য সংযোজন কর প্রদানের জন্য) বা বিন সার্টিফিকেট অনলাইন থেকে নিতে হবে। ঘরে বসে অনলাইনের মাধ্যমে বিন করতে পারবেন সহজেই। বিস্তারিত জানতে “অনলাইনে ভ্যাট রেজিস্ট্রেশন (মূল্যসংযোজন কর) বা Business Identification Number (BIN) করবেন কিভাবে?” সম্পূর্ণ ইনফোটি দেখুন।

অনলাইনে ভ্যাট রেজিস্ট্রেশন (মূল্য সংযোজন কর) বা Business Identification Number (BIN) করবেন কিভাবে?


আপনার ব্যবসার পরিধি, উৎপাদনশীলতা কিংবা কোন সেবা ভিত্তিক ব্যবসার জন্য কর প্রদান করা বাধ্যতামূলক, অবশ্যই আপনাকে ব্যবসার কর প্রদান করতে হবে। আর ব্যবসার নামে কর প্রদান করার জন্য বিন/বিআইএন সার্টিফিকেট প্রয়োজন। তাই আপনার ব্যবসার জন্য কিভাবে BIN সার্টিফিকেট করবেন তা জানুন।

 

কোন ধরনের ব্যবসার জন্য Business Identification Number বা BIN প্রয়োজন?

সাধারণত যে সকল ব্যবসার নামে বড় বড় আর্থিক লেনদেন প্রয়োজন সেই সকল ব্যবসার জন্য বিন সার্টিফিকেট করা আবশ্যক। সাধারণভাবে আমরা জানি যে সকল ব্যবসার বাৎসরিক লেনদেন ৩০ লক্ষ টাকার উপরে হয়ে থাকে সেই ব্যবসার জন্য ভ্যাট নিবন্ধন করতে হবে। এর কম লেনদেন হলে বিন করার প্রয়োজন নেই।

অনলাইনে ভ্যাট নিবন্ধ করুন নির্দেশিকা অনুযায়ী। অর্থাৎ প্রোপ্রাইটরশীপ ব্যবসার জন্য উল্লেখিত নিয়ম ভাল করে জানুন।

 

ঘরে বসে ব্যবসার ভ্যাট নিবন্ধন করবেন কিভাবে?

অনলাইনে ভ্যাট নিবন্ধন করার জন্য যে কোন ব্রাউজার ওপেন করে প্রবেশ করুন - www.vat.gov.bd এই সাইটে। এপর উপরে “Sign Up” মেনু ক্লিক করে এখানে নিজের নামে একটি একাউন্ট খুলে নিতে হবে।

অর্থাৎ বিন সার্টিফিকেট করার জন্য আপনাকে প্রথমেই ভ্যাট অনলাইন সিস্টেমে একটি একাউন্ট খুলে নিতে হবে। এই একাউন্ট দিয়েই ভ্যাট নিবন্ধন, দাখিলপত্র পেশসহ ভ্যাট সংক্রান্ত যাবতীয় কাজ করতে পারবেন।

এটি আসলে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ভ্যাট একাউন্ট। এই একাউন্ট থেকে ভ্যাট পরিচালনা করতে হবে।

 

সাইন-আপের সময় লক্ষণীয় বিষয়

একটি প্রতিষ্টানের জন্য ভ্যাট নিবন্ধন করার জন্য সাইন আপ করার সময় “Register as Taxpayer (Headquarter)” নির্বাচন করতে হবে। কোন প্রতিষ্ঠানের কেন্দ্রীয় নিবন্ধনের আওতায় কোন শাখার নিবন্ধন নেওয়ার পর শুধু সেই শাখার কাজ করার জন্য সাইন আপ করার সময় “Register as Taxpayer (Branch)” নির্বাচন করে “Sign-Up” করতে হবে।

এছাড়াও আপনার ভ্যাট কার্যক্রম পরিচালনার জন্য কোন স্টাফকে দায়িত্ব দেন, তাহলে তিনি প্রতিষ্ঠানের ভ্যাট পরিচালনার জন্য নিবন্ধন করবে “Register as Taxpayer’s Employee” হিসাবে। অর্থাৎ প্রতিষ্ঠানের কোন স্টাফ ভ্যাট কার্যক্রম পরিচালনার জন্য “Register as Taxpayer’s Employee” হিসাবে  “Sign-Up” করে বিন সার্টফিকেট করবেন।

 

ভ্যাট নিবন্ধন করার জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র কি কি?

প্রথমে আপনাকে সাইন আপ করার জন্য যা লাগবে এবং ভ্যাট নিবন্ধন ফরম পূরণ পূর্বক যা যা কাগজপত্র স্ক্যান করে আপলোড করতে হবে তা নিম্নরুপঃ

1)      আপনার আইডি ( জাতীয় পরিচয় পত্র)

2)      টিন সার্টিফিকেট

3)      মোবাইল নাম্বার

4)      ট্রেড লাইসেন্স

5)      একটি সচল ইমেইল আইডি

6)      ব্যাংক স্টেটমেন্ট

7)      ব্যবসার বিধিমালা কিংবা পরিচিতি ইত্যাদি।


আরো জানুন:

অনলাইনে ভোটার হবেন কিভাবে? ইন্টারনেট থেকে NID ডাউনলোড করবেন কিভাবে?

অনলাইনে টিন সার্টিফিকেট করবেন কিভাবে?

অনলাইনে আমদানি রপ্তানি লাইসেন্স করবেন কিভাবে?

অনলাইনে ট্রেড লাইসেন্স করবেন কিভাবে?

 

অনলাইন ভ্যাট নিবন্ধন করার পদ্ধতিঃ

প্রথমে অনলাইন ভ্যাট ওয়েবসাইটে www.vat.gov.bd সাইন আপ করুন। সাইন আপ হয়ে গেলে লগইন করে আপনার অনলাইন ভ্যাট প্রোফাইলে প্রবেশ করুন।

এবার Forms হতে Mushak-2.1 Form ফরমটি সিলেক্ট করুন। ফরে ফরমটি ওপেন হবে।

মূসক-২.১ ফরমটি যথাযথভাবে পূরণ করে সাবমিট করুন। কোন ভুল তথ্য ইনপুট দিলে উপরে নির্দেশনা মেসেজ আকারে দেখাবে।

এবার প্রয়োজনীয় কাগজপত্র স্ক্যান করে আপলোড করে প্রথমে Check বাটন ক্লিক করুন। কোন ভুল থাকলে নির্দশনা পাবেন এবং সেই অনুযায়ী সংশোধন করে Submit বাটন ক্লিক করে ‍Submit করুন।

সাবমিট করার পর এক দুই দিন সময় লাগতে পারে ভেরিফাই করার জন্য । ভেরিফাই হওয়ার জন্য অপেক্ষা করুন। কোন তথ্য অসম্পূর্ণ কিংবা আপলোডকৃত ডকুমেন্টের কোন সমস্যা থাকলে আপনাকে মেসেজ/ইমেইল করে নির্দেশনা দেওয়া হবে।

সবকিছু ঠিক থাকলে আপনার নামে একটি Business Identification Number (BIN) সংবলিত মূসক-২.৩ ফরমে একটি সনদ তৈরি হবে।

লগইন করে ড্যাশ বোর্ডে এটি দেখতে পাবেন। আপনার ইমেইলেও আপনাকে সনদটি প্রেরণ করা হবে।

নিজের নামে তৈরিকৃত এই Business Identification Number (BIN) টি হচ্ছে মাস্টার অর্থাৎ এটি প্রধান বিআইএন হিসেবে বিবেচিত হবে এবং এটির জন্য আপনাকে কোনো কর প্রদান বা দাখিলপত্র পেশ করতে হবে না।

 

ব্যবসার নামে বিন তৈরি করার উপায়

আপনার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের নামে BIN গ্রহণ করার জন্য অনলাইন ভ্যাট ড্যাশবোর্ড লগইন করুন।

এবার Forms হতে Mushak-2.2 Form ওপেন করে প্রতিষ্ঠানের নাম এবং অন্যান্য তথ্য দিয়ে পূরণ করুন। এই নামে অর্থাৎ আপনার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের নামে নতুন শাখা বিন/বিআিইএন ও সনদ তৈরি হবে।

এনামে আপনাকে কর প্রদান করতে হবে, হিসেব রাখতে হবে ও দাখিলপত্র জমা দিতে হবে।

আপনার যদি একাধিক ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থাকে তাহলে একই নিয়মে আলাদা আলাদা BIN সর্টিফিকেট তৈরি করে নিতে হবে এবং কর প্রদান করতে হবে।

 

ব্রাঞ্চ বা কোন শাখার ক্ষেত্রে অন্য কোন লোককে দায়িত্ব দিলে

কোন ব্রাঞ্চের ব্যবস্থাপনার দায়িত্ব নিয়োগকৃত ব্যাক্তি হলে তিনি Register as Taxpayer (Branch) হিসাবে সাইন-আপ করবেন। অর্থাৎ আপনার প্রতিষ্ঠানের কোন ব্রাঞ্চের ভ্যাট ব্যবস্থাপনার দায়িত্ব দিন Register as Taxpayer (Branch) সাইন আপ করা ব্যাক্তিকে।

অনুরুপভাবে কোন কর্মচারী বা স্টাফকে কোন শাখার দায়িত্ব দিলে Register as Taxpayer’s Employee হিসাবে সাইন-আপ করে বিআইএন তৈরী করে নিতে হবে। এই বিন/বিআইএন এর আওতায় উক্ত শাখার ভ্যাট পরিচালনা করা যাবে।

 

দুইটি প্রোপাইটিটর ব্যবসার বিন/বিআইএন করার উদাহরণঃ

মনে করি, আপনার দুটি প্রোপ্রাইটরশীপ ব্যবসা আছে, যথা এক. ক ট্রেডার্স এবং দুই. খ  ট্রাভেলস । এই দুটি ব্যবসার Business Identification Number (BIN) করার জন্য প্রথমে ভ্যান অনলাইন সাইটে রেজিস্ট্রেশন করে মূসক-২.১ ফরম পূরণ করে নিজের নামে একটি বিন সার্টিফিকেট করে নিতে হবে। এরপর মূসক-২.২ ফরম ব্যবসার জন্য পূরণ করে আলাদা দুটি ব্যবসার জন্য দুটি BIN করে নিতে হবে।

এক্ষেত্রে আপনার নামে যে বিন সার্টিফিকেটটি হবে সেটি হবে মাস্টার বিন অপর দুটি হবে ব্যবসায়িক বিন। আপনার নামের বিনটির কোন কর প্রদান করা লাগবে না। ব্যবসার জন্য যে বিন তৈরি করবেন সেই বিনের জন্য শুধুমাত্র কর প্রদান করতে হবে।

অর্থাৎ এই উদাহরণে আপনার তিনটি বিন থাকলেও দুটি বিনের কর প্রদার করতে হবে।

 

শেষকথা:

আশাকরি বিন/বিআইএন করবেন কিভাবে তার প্রথমিক ধারণা এই ইনফো থেকে পেয়েছেন। পরবর্তীতে আপনা মূসক ফরম কিভাবে পূরণ করবেন বিস্তারিত আলোচনা করবো ইনশাল্লাহ। এই বিষয়ে আপনার কোন প্রশ্ন, মতামত কিংবা পরামর্শ থাকলে কমেন্ট করে জানাতে ভুলবেন না।

ইনফোটি আপনার কাছে প্রয়োজনীয় মনে হলে শেয়ার করে নিজের ওয়ালে রেখে দিন। প্রয়োজনের সময় যাতে নিজের ওয়াল থেকে সহজেই খুজে নিতে পারেন।


Home BD info এর অন্যান্য ইনফো

সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং কি? বাংলাদেশে কেন এটি গুরুত্বপূর্ণ?

বাংলাদেশে ব্যবসার ধরণগুলো কি কি?

বাংলাদেশ থেকে পেপাল একাউন্ট করে ভেরিফাই করবেন কিভাবে?

ডিজিটাল মার্কেটিং আপনার ব্যবসার জন্য গরুত্বপূর্ণ কেন?

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

1 মন্তব্যসমূহ
  1. ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের নাম রেজিস্ট্রেশন করার উপায় জানতে এই ভিডিওটি দেখুন
    https://youtu.be/V4LLnuNZmiw

    উত্তরমুছুন
একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

#buttons=(Accept !) #days=(20)

Our website uses cookies to enhance your experience. Learn More
Accept !