মোটরসাইকেল ক্রয় করার আগে কি জানা জরুরী?

0

আজকাল যানজটের কারণে কোথাও সময়মতো পৌঁছানো প্রায় অসম্ভব হয়ে পড়েছে। ঘণ্টার পর ঘণ্টা গাড়িতে বসে অনেক সময় নষ্ট করার পাশাপাশি ধৈর্যের পরীক্ষা দিতে হয়। এ কারণে নারী ও পুরুষের মধ্যে দুই চাকার গাড়ি খুবই জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। আজকের এই ইনফোটিতে আলোচনা করবো-মোটরসাইকেল ক্রয় করার আগে কি জানা জরুরী? সম্পর্কে।


মোটরসাইকেল ক্রয় করার আগে কি জানা জরুরী?


মনে রাখুন, বর্তমানে মটরসাইকেলের দাম সাশ্রয়ী হওয়ায় ব্যবহারও বাড়ছে। এছাড়া যারা পাহাড় বা সাগরে ছুটে যেতে চান তাদের প্রথম পছন্দ এই টু-হুইলার। কিন্তু যারা নতুন বাইক কিনতে চান তাদের জন্য কিছু বিষয় মাথায় রাখা খুবই জরুরী। এসব এড়িয়ে চললে যেকোনো সময় হোঁচট খেতে পারে। চলুন জেনে নেই বাইক কেনার আগে যে বিষয়গুলো মাথায় রাখতে হবে-


 মটরসাইকেল কেনার জন্য আপনার বাজেট নির্ধারণ

মোটরসাইকেল বা স্কুটার কিনতে আপনার কত খরচ হবে? মোটরসাইকেল বেশিরভাগই ব্যাংক ঋণের মাধ্যমে কেনা হয়। তাই মোটরসাইকেল কেনার জন্য আপনার বাজেট নির্ভর করে আপনি মাসিক কিস্তিতে কত টাকা দিতে পারবেন এবং আপনার কতটা সঞ্চয় আছে তার উপর।


এছাড়াও আপনি কমপক্ষে 2-3 বছর একটি স্কুটার বা মোটরসাইকেল চালাবেন। তাই রক্ষণাবেক্ষণ খরচের কথাও মাথায় রাখতে হবে। চালানোর জন্য নিয়মিত পেট্রোল ভর্তি করা প্রয়োজন।


নতুন বা পুরাতন মটরসাইকেল কিনবেন?

এই প্রশ্নের উত্তর আপনার বাজেট এবং অন্যান্য চাহিদার উপর নির্ভর করে। আপনি যদি প্রথমবার নিজের স্কুটার বা মোটরসাইকেল কিনছেন, তাহলে পুরনো স্কুটার বা মোটরসাইকেল কেনাই বুদ্ধিমানের কাজ। একবার আপনি রাইড শিখলে আপনি এটি 1-2 বছর পর বিক্রি করতে পারবেন এবং একটি নতুন মোটরসাইকেল কিনতে পারবেন।

এগুলো দরকার হতে পারে...



মটরসাইকেলের ব্র্যান্ড নির্বাচন

মোটরসাইকেল কেনার সময় কোন ব্র্যান্ডের মোটরসাইকেল কিনবেন তা নির্ধারণ করা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এ ব্যাপারে আপনি আপনার পরিবার বা বন্ধুদের পরামর্শ নিতে পারেন যাদের বাইক আছে। একটি নতুন মোটরসাইকেল কেনার সময় সর্বদা একটি নির্ভরযোগ্য এবং জনপ্রিয় ব্র্যান্ডের মোটরসাইকেলের দিকে মনোনিবেশ করা ভাল। এটি আপনার গাড়ির নিরাপত্তা এবং স্থায়িত্ব নিশ্চিত করে।

আরো জানতে পারেন- বর্তমান বাজারে জনপ্রিয় ১০ টি মোটরসাইকেল ব্রান্ড দেখুন কোনটি আপনার পছন্দ?


মডেল এবং মাইলেজ

কোন মডেলের টু হুইলার কিনবেন তা নির্ধারণ করা খুবই কঠিন কাজ। নিশ্চিত করুন মোটরসাইকেলটি আরামদায়ক। এছাড়াও মোটরসাইকেলের ওজন আপনার শারীরিক ক্ষমতার মধ্যে হওয়া উচিত। তা ছাড়া পেট্রোলের দাম যেমন বাড়ছে, মাইলেজের দিকেও নজর দিতে হবে। মোটরসাইকেলের ক্ষেত্রে, এক লিটার পেট্রোল 80 কিলোমিটার পর্যন্ত যেতে পারে।


বাইকের ওজন

বাইকটি কেনার আগে বাইকটির ওজন দেখে নিন। কারণ গাড়ির ওজন বেশি হলে তা সামলানো আপনার পক্ষে কঠিন হতে পারে। সাধারণত এই গাড়িগুলি খুব হালকা হয়। ফলে যাদের ওজন বেশি তাদের এই গাড়ি চালাতে সমস্যা হতে পারে। এছাড়াও, আপনি যদি গাড়ির পিছনে অন্য কাউকে রাখেন তবে আপনার গাড়ির ওজন বহন করার ক্ষমতা আছে কিনা তা জানুন।


একাধিক ডিলার দেখুন

মোটরসাইকেল কেনার আগে একাধিক ডিলারের কাছে যান। দাম শুনে একটু সময় নিয়ে সিদ্ধান্ত নিন। কমপক্ষে 2-3 ডিলারের কাছ থেকে দাম শুনে তারপর, কেনার সিদ্ধান্ত নিন।


একটি টেস্ট রাইড নিন

আপনি যদি নিজে ড্রাইভ করতে না জানেন, তাহলে আপনার সাথে এমন একজন বন্ধুকে নিয়ে যান যিনি টু-হুইলার চালাতে পারেন। হাইওয়ে এবং শহরের রাস্তায় একটি পরীক্ষামূলক রাইড নেওয়ার চেষ্টা করুন।


মুখের কথা বিশ্বাস করবেন না

মোটরসাইকেল কেনার আগে প্রতিটি জিনিসের দাম আলাদা করে জেনে নিন। শোরুম থেকে কেনার খরচ এবং রেজিস্ট্রেশনের খরচ আলাদাভাবে জেনে নিন।


দর কষাকষি করতে ভুলবেন না

ক্রয়ের সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে ডিলারকে দাম কমানোর জন্য জিজ্ঞাসা করুন। নগদ কিনতে কত সস্তা হবে জিজ্ঞাসা করুন। যেহেতু আপনি কয়েক জায়গা থেকে দাম সম্পর্কে ধারণা পেয়েছেন। তাই দাম কিছুটা কমাতে পারেন।


অন্যান্য ইনফো দেখুন







Tags

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ
একটি মন্তব্য পোস্ট করুন (0)


#buttons=(Accept !) #days=(20)

Our website uses cookies to enhance your experience. Learn More
Accept !