ঘরে বসে পুলিশের কোন সেবা কিভাবে নিবেন?

বাংলাদেশ পুলিশের প্রধান দায়িত্ব হচ্ছে দেশের মানুষের জানমাল রক্ষা করে সর্বোচ্চ নিরাপত্তা নিশ্চিত করা। তাই এই আইন শৃঙ্খলা বাহীনি গণমুখী বিভিন্ন ই-সেবা চালু করেছে। আজকের ইনফোটিতে আলোচনার বিষয়বস্তু হচ্ছে- “ঘরে বসে পুলিশের কি কি সেবা কিভাবে নিতে পারবেন?”

ঘরে বসে পুলিশের কি কি সেবা কিভাবে নিতে পারবেন?

অনেকেই সঠিক তথ্য না জানার কারণে হয়রানির শিকার হয়ে থাকেন। অনেকে আবার পুলিশ দেখলেই ভয় পেয়ে যান। মনে রাখুন কোনো অপরাধ না করলে কিংবা কোন অপরাধের সাথে জড়িত না থাকলে পুলিশ আপনার কোন ক্ষতি করবে না। আইনগতভাবে তারা কোনো আইনবর্হিভুত কাজ করার ক্ষমতা রাখে না। যদিও তাদের হাতে অনেক ক্ষমতা রয়েছে।

 

পুলিশের কাজ কি?

পুলিশের সেবাগুলো নিতে হলে তাদের কাজ কি কি তা আপনাকে জানতে হবে। বাংলাদেশ পুলিশ সাধারণত আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা, আপরাধ দমন, অপরাধীদের গ্রেপ্তার, মামলা গ্রহণ, বিচারে সহায়তা, সড়ক শৃঙ্খলা এবং ভিআইপি নিরাপত্তা-প্রটোকলসহ অনেক দায়িত্ব পালন করে থাকে।

এছাড়াও গোয়েন্দা তথ্য সংগ্রহ ও প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা নেওয়ার কাজও তারা করে থাকে। আরো অনেক ধরণের কাজ করে। যেমন- বাংলাদেশ পুলিশ জঙ্গিবাদ প্রতিরোধে জনগণকে সচেতন করে তোলা, ট্রাফিক আইন মেনে চলতে শিক্ষার্থীসহ অন্যদেরকে আগ্রহী করে তোলা, হেলমেট পরে মোটরসাইকেলে ওঠা ইত্যাদি বিষয়ে বিভিন্ন সময় কার্যাক্রম গ্রহণ করে।

সুতরাং পুলিশের প্রধানতম কাজ হচ্ছে সমাজের শান্তি শৃঙ্খলা রক্ষা করা। যাইহোক আজকে আমরা পুলিশের সেবা ঘরে বসে পাবেন কিভাবে? কি কি সেবা ঘরে বসে পাওয়া যাবে ইত্যাদি নিয়ে আলোচনা করবো।

আরো জানুন:

মামলা করবেন কিভাবে? মামলা করার আগে কি জানা জরুরী?

গ্রেপ্তার করতে আসা ব্যাক্তিগুলো সত্যিই পুলিশ কিনা কিভাবে জনবেন?

মানি এসকট এর ক্ষেত্রে পুলিশের সাহায়তা নিবেন কিভাবে?

মোটরসাইকেল চুরি হলে পুলিশের সহায়তায় কিভাবে ফিরে পাবেন? 


জাতীয় জরুরী সেবা বা ন্যাশনাল ইমার্জেন্সি সার্ভিস ৯৯৯

পুলিশেল জরুরী এই সেবাটি চালু হয় ২০১৭ সালের ১২ ডিসেম্বরে। আর পুলিশের অধীনে পরিচালিত একটি জরুরী কল সেন্টার হচ্ছে ৯৯৯ জরুরি সেবা।

এখানে শুধু পুলিশ নয়, আপনার জরুরী প্রয়োজনে ফায়ার সার্ভিস ও অ্যাম্বুলেন্স সেবাও নিতে পারেন। দেশের যেকোনো প্রান্ত থেকে জরুরী সেবা ৯৯৯ এ ফোন দিয়ে এই সেবা গ্রহণ করা যাবে।

যেকোনো সময় দেশের যে কোনো স্থানে আপনি বিপদে পড়লে কিংবা ফায়ার সার্ভিস বা অ্যাম্বুলেন্স প্রয়োজন হলে ৯৯৯ এ ফোন দিয়ে সেবা নিতে পারেন। সপ্তাহে ৭ দিন ২৪ ঘন্টাই চালু থাকে এই সেবা।

 

বিডি পুলিশ হেল্পলাইন মোবাইল অ্যাপ

বিডি পুলিশ হেল্পলাইন নামে একটি মোবাইল অ্যাপ রয়েছে গুগল প্লে-স্টোরে। যারা স্মার্টফোন ব্যবহার করেন তারা প্লে-স্টোর থেকে এই অ্যাপটি ডাউনলোড করে মোবাইলে ব্যবহার করতে পারেন।

নিজের নাম প্রকাশ না করেও অভিযোগ কিংবা মতামত জানাতে পারেন পুলিশকে এই অ্যাপের মাধ্যমে।

 

হ্যালো সিটি অ্যাপ

এই অ্যাপের মাধ্যমে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের “কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম” ইউনিট কে তথ্য দেওয়া যাবে। এই মোবাইল অ্যাপ চালু হয়েছে মূলত তথ্য সংগ্রহ করার লক্ষেই।

অ্যাপ সম্পর্কে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ বলছে, জঙ্গিবাদ/উগ্রবাদ, সাইবার ক্রাইবার ক্রাইম, বোমা/বিস্ফোরক/ অস্ত্র/মাদক, আন্তঃদেশীয় অপরাধ/জালিয়াতি, মোস্ট ওয়ান্টেড ব্যাক্তি সম্পর্কে নিজের পরিচয় গোপন রেখে পুলিশকে তথ্য প্রদান করা যাবে।

 

আইজিপি’স কমপ্লেন সেল

পুলিশের বিরুদ্ধে অভিযোগ করার জন্য চালু হয়েছে “আইজিপি’স কমপ্লেন সেল”। এটি ২৪ ঘন্টাই চালু থাকে এবং এটি পুলিশ সদর দপ্তরে অবস্থিত।

পুলিশের যে কোনো অপেশাদার ও অনৈতিক কর্মকান্ড সম্পর্কে এই সেলকে জানাতে পারেন। অভিযোগ করার ক্ষেত্রে সরাসরি কুরিয়ার সার্ভিস কিংবা ডাকযোগে তথ্য জানাতে পারেন। এছাড়া মোবাইল নাম্বার ও ইমেইলে অভিযোগ করতে পারেন। মোবাইল নাম্বার- ০১৭৬৯-৬৯৩৫৩৫ ও ০১৭৬৯-৬৯৩৫৩৬ এবং ইমেইল আইডি হচ্ছে- complain@police.gov.bd

পুলিশের বিরুদ্ধে কোথায় কিভাবে অভিযোগ করবেন?

 

ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টার

নির্যাতনের শিকার নারী ও শিশুদের আশ্রয় কিংবা থাকার জন্য ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টার স্থাপিত হয়েছে। এটি ঢাকার তেজগাঁও থানা চত্বরে অবস্থিত।

পুলিশের পাশাপাশি আলো ১০ টি বেসরকারি সংস্থা এখানে আইনি সহায়তাসহ অন্যান্য কাজ করে থাকে।

 

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট কি? ঘরে বসে কিভাবে “পুলিশ ক্লিয়ারেন্স” সার্টিফিকেটের জন্য আবেদন করবেন। এই বিষয়ে আমাদের সাইটে একটি বিস্তারিত ইনফো রয়েছে।

পুলিশ সদর দপ্তর থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানা যায়, এখন থেকে জনগণ ঘরে বসেই অনলাইনে “পুলিশ ক্লিয়ারেন্স” সেবা গ্রহণ করতে পারবেন।

ইন্টারনেটের মাধ্যমে একটি নির্দিষ্ট ফরম পূরণ করে পরে তা সংশ্লিষ্ট শাখা থেকে সংগ্রহ করতে হবে। বিস্তারিত জানুন – “পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট অনলাইনে পাবেন কিভাবে?

 

প্রবাসী সহায়তা সেল

প্রবাসীদের সাহায্য করার লক্ষে পুলিশের “প্রবাসী সহায়তা সেল” কাজ করে থাকে। বিদেশে অবস্থানরত বাংলাদেশি নাগরিকরা দেশে কোনো সমস্যার সমাধানের জন্য পুলিশের সাহায্য চাইতে পারেন।

এক্ষেত্রে আপনি মোবাইল ফোনে ফোন করে কিংবা ইমেইলে যোগাযোগ করতে পারেন। এজন্য পুলিশ সদর দপ্তরে “প্রবাসী সাহয়তা সেল” চালু রয়েছে। মোবাইল- +৮৮ ০১৭৬৯ ৬৯০০১৯  এবং ইমেইল আইডি- expatriatehelp@police.gov.bd

কোন মন্তব্য নেই:

Blogger দ্বারা পরিচালিত.