পিং টুল: https://pingomatic.com/ এই সাইটটি ব্লগার কিংবা ওয়েবসাইট মালিকদের কি কাজে লাগে?

বর্তমান সময়ে ব্লগিং কিংবা ওয়েবসাইট তৈরি করে আয় করার প্রবণতা অনেক বেশি। তবে সবাই এ কাজে সফলতা অর্জন করতে পারে না। এর প্রধান কারণ হচ্ছে, বেশির ভাগ মানুষ সবকিছু ভাল করে না জেনে কাজে নেমে পড়ে এবং দ্রুত আয় করতে চায়। আপনাকে মনে রাখতে হবে পৃথিবীতে কোন কাজই সঠিকভাবে করতে না পারলে সফলকাম হওয়া সম্ভব নয়। যাই হোক আজকের ইনফোটি তাদের জন্য কাজে লাগবে যারা নতুন ব্লগিং শুরু করছেন কিংবা শুরু করবেন বলে পরিকল্পনা করেছেন। বিষয় হলো ওয়েবসাইট পিং করার জন্য https://pingomatic.com/ এই সাইট ব্যবহার সম্পর্কে।

যারা নতুন ব্লগিং করার ক্ষেত্রে, তাদের ধারণা একটি ওয়েবসাইট তৈরি করে ব্লগিং শুরু করলেই মনে হয় টাকা ইনকাম শুরু হবে। বাস্তবে কিন্তু তা হয় না। কারণ ওয়েবসাইট তৈরি করলেই ভিজিটর পাওয়া যায় না। আর সাইটে ভিজিটর না থাকলে এক টাকাও ইনকাম করা সম্ভব নয়। তাই অনেকে সবকিছু না জেনে এই পেশায় এসে দ্রুত ছেড়ে যায়।

সাইটের ভিজিটরও খুব দ্রুত বৃদ্ধি করা সম্ভব নয়। এটা নির্ভর করে আপনার সাইটের কনটেন্ট, এসইও করার কৌশল এবং ব্যবহারকারীর জন্য সাইটের ডিজাইনের উপর। আপনার সাইটে যদি কনটেন্ট না থাকে তাহলে ভিজিটর এসে আপনার সাইটে কি করবে? সেখানেতো পানি খাওয়ার ব্যবস্থা নাই যে কিছু না পেলেও একটু পানি খেয়ে যাবে?

কনটেন্ট যদি থাকে তাহলে সেগুলো এসইও করা না হলে ভিজিটর জানতেই পারবেনা যে, আপনার একটি ওয়েবসাইট কিংবা ব্লগ সাইটে আছে। যদি ভিজিটর জানতেই না পারে তাহলে কিভাবে আপনার সাইটটি ভিজিট করবে?

এজন্য সাইটের ভিজিটর পাওয়ার জন্য এসইও খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এটা ছাড়া সফলতা পাওয়া কোনভাবেই সম্ভব নয়। তাই আপনাকে SEO এর সকল কৌশল জানতে হবে এবং সাইটে প্রয়োগ করতে হবে। এসইও কে গতিশীল করার ছোট একটি টুল হচ্ছে সাইটকে পিং করা।

কেন পিং করবেন? কিভাবে পিং করবেন? ওয়েবসাইট পিং করলে কি লাভ হয় ইত্যাদি বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হলো।

ওয়েবসাইটকে কেন Pinging করা হয় বা পিং করা প্রয়োজন কেন?

আপনার সাইট আপডেট হলে সার্চ ইঞ্জিনগুলো জানবে না যে, আপনার সাইটটি আপডেট করা হয়েছে। তারা প্রথমবার আপনার সাইট যেভাবে ইনডেক্স করবে সেভাবেই ভিজিটরদের কাছে উপস্থাপন করবে।

বিষয়টা আরো বিস্তারিত ভাবে বলা যাক, মনে করুন আপনার সাইটে একটি পোস্ট করছেন অনেক আগেই এবং পোস্টটি সার্চ ইঞ্জিনেও ইনডেক্স হয়ে দেখাচ্ছে কিন্তু পোস্টটি যখন আপডেট করবেন কিংবা নতুন পোস্ট করবেন সেটি কিন্তু সার্চ করলে দেখাবে না। সার্চ ইঞ্জিনে আগের মতই দেখাবে।

তাই সার্চ ইঞ্জিনকে বলতে হবে যে, আমার পোস্টটি আপডেট করেছি এটা পুনরায় ইনডেক্স করুন। সার্চ ইঞ্জিনকে সাইটকে ইনডেক্স করার কথা বলাটাই মূলত Pinging করা।

সার্চ ইঞ্জিনকে সতর্ক করার জন্যই মূলত পিং করা হয়ে থাকে, যাতে সার্চ ইঞ্জিন সাইটটিকে দ্রুত ইনডেক্স করে নিতে পারে। এক কথায় Ping করলে সার্চ ইঞ্জিন একটি এলার্ট পায় পিং করা সাইটটি ইনডেক্স করার জন্য।


কিভাবে ওয়েবসাইট Ping করবেন?

অনলাইনে অনেক ফ্রি Pinging ওয়েবসােইট রয়েছে। সেগুলো আপনি সহজেই ব্যবহার করতে পারেন। তবে আমরা এখানে একটি জনপ্রিয় Pinging ওয়েবসাইটের কথা বলছি। সাইটটির নাম হচ্ছে Ping O Matic এই সাটটি ব্যবহার করে আপনার ওয়েবসাইট পিং করতে পারেন আনায়াসে।

সাইটটি ওপেন করলে নিচের মত ফরম পাবেন। এখানে দেখুন তিনটি ঘর রয়েছে। প্রথম ঘরে আপনার সাইটের নাম, দ্বিতীয় ঘরে সাইটের ইউআরএল এবং তৃতীয় ঘরটি অপশোনাল, দিতেও পারেন না দিলেও সমস্যা নাই।

ওয়েবসাইট পিং Pinging টুল Pingomatic

Services to Ping সেকশনে Check All ক্লিক করুন। এবার Send Ping বাটন ক্লিক করুন। এখন ৪৮ ঘন্টার মধ্যেই আপনার পিং করা সাইটটি আপডেট হয়ে যাবে।

পিংকরার অনেক এডভান্স পদ্ধতি রয়েছে। তবে আপাতত আপনি এতটুকু করলেই হয়ে যাবে। যখন আপনার ব্যবসা অনেক বড় পরিসরে বেড়ে যাবে তখন আপনি পেইড সার্ভিস ব্যবহার করে সাইটের অনেক সুবিধা বাড়াতে পারবেন।

আরো জানুন:

গুগল এডসেন্স কি?

গুগল এড কি?

সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং কি?

গুগল এডসেন্স এর বিকল্প সেরা একটি পাবলিশেয়ার নেটওয়ার্ক 

কোন মন্তব্য নেই:

Blogger দ্বারা পরিচালিত.