NID Service চার্জ/ ফিস বিস্তারিত জানুন কিভাবে পরিশোধ করবেন?

অনলাইনে এন আইডির জন্য আবেদন করার পদ্ধতি অনেকেই জানেন কিন্তু অনেকেই জানেন না যে এর বিভিন্ন সেবার চার্জ কোথায় কিভাবে জমা দেওয়া হয়। আজকের ইনফোতে NID Service চার্জ/ ফিস বিস্তারিত জানুন কিভাবে পরিশোধ করবেন? 


চার্জ পরিশোধ করার আগে আপনার কত টাকা ফিস হয়েছে তা জেনে নিতে হবে এন আইডি সফ্টওয়ার থেকে।

  

বাংলাদেশ নির্বাচন কর্তৃক বিভিন্ন সেবার চার্জ সমূহঃ

নির্বাচন কমিশনের বিভিন্ন সেবা যেমন- জাতীয় পরিচয় পত্র নবায়ন, হারানো বা নষ্ট হওয়া আইডি কার্ড প্রদান, জাতীয় পরিচয় পত্র সংশোধন ও তথ্য-উপাত্ত সংশোধন ইত্যাদি। 

এদের চার্জ বিভিন্ন কন্ডিশনে হতে পারে। নির্বাচন অফিসিয়া সাইনে বিভিন্ন চার্জসমূহের চার্ট দেওয়া আছে। 

অফিসিয়াল সাইটের চার্ট দেখতে - https://services.nidw.gov.bd/fees ভিজিট করুন।

NID Service Fee

 জাতীয় পরিচয় পত্র নবায়ন ফি

 জাতীয় পরিচয় পত্রের মেয়াদ সাধারণত ১৫ বছরের হয়ে থাকে। মেয়াদ উত্তীর্ণ হলে নির্ধারিত প্রদান সাপেক্ষে নির্বাচন কমিশনের নিকট আবেদন করতে হবে। 

বর্তমানে নবায়ণ সাধারণ ফি ১০০ (একশত) টাকা এবং জরুরী ফি ১৫০ (একশত পঞ্চাশ) টাকা।


আরো জানুন:

 

ভোটার হওয়ার নতুন নিয়ম (এনআইডি করতে যা যা লাগবে)

 

অনলাইনে ভোটার হবেন কিভাবে? ইন্টারনেট থেকে NID ডাউনলোড করার নিয়ম জেনে নিন

  

NID সংশোধন: জাতীয় পরিচয়পত্র সংশোধনের আবেদন বাতিল হলে আপিল করার সুযোগ বার

 

SMS দিয়ে NID নাম্বার বের করা উপায় জানুন


 

হারানো বা নষ্ট হওয়া আইডির জন্য আবেদন ফি

 আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র হারিয়ে গেলে কিংবা নষ্ট হয়ে গেলে প্রথম কাজ হচ্ছে থানায় জিডি করা। এরপর জিডির মূল কপি সংযুক্ত করে নির্ধারিত ফরমে আবেদন করতে হবে।

কততম আবেদন করছেন তার উপর ভিত্তি করে ফি প্রযোজ্য হবে। সাধারণ কিংবা জরুরী ফি আলাদা।

প্রথমবার আবেদনে ক্ষেত্রে সাধারণ-২০০ (দুইশত) টাক, জরুরী- ৩০০ (তিনশত) টাকা ফি দিতে হবে।

দ্বিতীয়বার আবেদনের ক্ষেত্রে সাধারণ - ৩০০ (তিনশত) টাকা, জরুরী- ৫০০ (পাঁচশত) টাকা।

পরবর্তী আবেদনের ক্ষেত্রে - সাধারণ - ৫০০ (পাঁচশত) টাকা, জরুরী - ১০০০ (এক হাজার) টাকা।


 জাতীয় পরিচয় পত্র সংশোধন ফি

 এন আইডি সংশোধন বলতে জাতীয় পরিচয় পত্র নিবন্ধন করার সময় ফরম-২ এর যে সকল তথ্য বাংলা ও ইংরেজিতে প্রদান করা হয়। 

যেমন - নিজের নাম, মাতা-পিতার নাম, ঠিকানা, রক্তের গ্রুপ, জন্ম তারিখ ও নিজের স্বাক্ষর ইত্যাদিকে “জাতীয় পরিচয় পত্র সংশোধন” হিসাবে গণ্য করা হয়।

প্রথমবার আবেদন ফি - ২০০ (দুইশত) টাকা

দ্বিতীবার আবেদন ফি - ৩০০ (তিনশত) টাকা

অন্য যে কোন বার আবেদন ফি - ৪০০ (চার শত) টাকা


এন আইডির তথ্য-উপাত্ত সংশোধন ফি

 ফরম-২ এর তথ্য ব্যতিত অন্যান্য তথ্য সংশোধন কে “তথ্য-উপাত্ত” সংশোধন ধরা হয়ে থাকে। এ সংশোধনের আবেদন ফি নিম্নরুপঃ

প্রথমবার আবেদন ফি - ১০০ (একশত) টাকা

দ্বিতীয়বার আবেদন ফি - ২০০ (দুইশত) টাকা

অন্য যে কোন বার আবেদন ফি - ৩০০ ( তিনশত) টাকা

বিঃদ্রঃ সার্ভিস চার্জ তথ্যগুলো কমিশন কর্তৃক পরিবর্তন হতে পারে। হালনাগাত তথ্য জানতে এনআইডি সাইট ভিজিট করুন।

আপনার আবেদনের কন্ডিশনের উপর ভিত্তি করে সার্ভিস চার্জ প্রযোজ্য হবে। আপনার আবেদনে ফি কত টাকা হবে তা নিজেই এন আইডি সাইট থেকে ক্যালকুলেট করে নিতে পারবেন। 

আপনার সার্ভিস চার্জ কত টাকা দিতে হবে জানতে  https://services.nidw.gov.bd/fees/fee_calculate ভিজিট করুন।


NID Service চার্জ পরিশোধের নিয়ম


বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন এখন আর পুরানো নিয়মে সার্ভিস চার্জ গ্রহণে এলাও করে না। নির্ধারিত ব্যাংকে অনলাইনের মাধ্যমে ফি পরিশোধ করতে হবে। আপনার সার্ভিস চার্জ কত টাকা তা আগে জেনে নিন। অতপর নির্ধারিত ব্যাংকে অনলাইনে মাধ্যমে ফি জমা দিন।
 
বর্তমানে যে ব্যাংগুলোর মাধ্যমে এনআইডির সার্ভিস চার্জ গ্রহণ করা হয় তা হলো-
 
 
 
এছাড়াও ওয়ান ব্যাংক, ট্রাস ব্যাংক, মিউচুয়াল ট্রাস ব্যাংক লিঃ ও বাংলাদেশ কমার্স ব্যাংক অনলাইন ব্যাংকিং এর মাধ্যমে এনআইডর ফি জমা দিতে পারবেন।

অন্যান্য বিল বর্তমানে অনেক সহজে বিকাশ বা যে কোন ডিজিটাল ওয়ালেটের মাধ্যমে যেমন সহজেই জমা দেওয়া যায় এনআইডির ফি ততটা সহজে জমা দেওয়া যায় না। 

তবে সহজিকরণের কাজ চলছে। অতি শ্রীঘ্রই খুব সহজেই ফি জমা দিতে পারবেন।


Home BD info এর অন্যান্য ইনফো জানুন

Online School অনলাইন স্কুল শিক্ষার্থীদের কিভাবে প্রয়োজন মিটাতে পারে

কোন মন্তব্য নেই:

Blogger দ্বারা পরিচালিত.