গরুর মাংস রান্নার রেসিপি : গরুর গোস্তের রান্নার ৮ টি আইটেম

0

আজকে গরুর মাংস রান্নার রেসিপি নিয়ে কয়েকটি পদ্ধতি আলোচনা করব। যেমন- গার্লিক বিফ, গরুর মেজবানি মাংস, কাটা মসলায় বিফ ভুনা, গরুর কড়াই গোস্ত, গরুর মাথার মাংস ভুনা, গরুর কালা ভুনা ইত্যাদ।

গরুর মাংস রান্নার ৮ রেসিপি

যারা গরুর মাংস রান্না বিষয়ে আগ্রহী তাদের জন্য আজকে আমরা এখানে গরুর মাংসের ৮ টি রেসিপি তুলে ধরা হয়েছে। গরুর মাংস যারা খাবারে পছন্দের তালিকায় রাখেন তারা নিম্ন রেসিপিগুলো থেকে ঝটপট পছন্দের রেসিপিটি করে ফেলুন।

গরুর মাংস রান্নার ৮ রেসিপি

১। গার্লিক বিফ:

যারা তাদের গরুর মাংস মসৃণ উপায়ে খেতে পছন্দ করেন তাদের জন্য গার্লিক বিফ তুলনা হয় না। তাই ঘরে বসেই তৈরি করতে পারেন রেস্তোরাঁর রসুন বিফের সুস্বাদু স্বাদ।

প্রয়োজনীয় উপকরণ:

গরুর মাংস 1 কেজি, পেঁয়াজ কাটা 1 কাপ, হলুদ এবং মরিচের গুঁড়া 1 কাপ, আধা চা চামচ আদা রসুনের পেস্ট, 4/5 লবঙ্গ রসুন, 1 চা চামচ ধনে জিরা গুঁড়া, সামান্য স্বাদযুক্ত লবণ তেল আধা কাপ, মাংস মসলা আধা চা চামচ, টমেটো সস আধা কাপ, টক দই কাপ, গরম মসলা গুঁড়া আধা চা চামচ, লবণ স্বাদমতো।

প্রস্তুতির পদ্ধতি:

মাংস ভালকরে ধুয়ে পরিস্কার পত্রে কেটে নিন। একটি পাত্রে মাংস, হলুদ, গোলমরিচ, টক দই, আদা, রসুন, লবণ, ধনে, জিরা গুঁড়া, টেস্টিং সল্ট ভালো করে মিশিয়ে ২০ মিনিট ম্যারিনেট করে রাখুন। কড়াইতে তেল গরম করে পেঁয়াজ বাদামি করে ভেজে মাংস দিয়ে নাড়ুন।

মাংস কষানো হলে সামান্য পানি দিয়ে ঢেকে দিন। এরপর  মাংস সেদ্ধ হয়ে গেলে টমেটো সস, কাঁচা মরিচের টুকরো এবং রসুনের লবঙ্গ দিয়ে ১০ মিনিট আঁচে গরম গরম পরিবেশন করুন।


২. গরুর মেজবানি মাংস:

 বিয়ের অনুষ্ঠানে বা রেস্টুরেন্টে গেলে গরুর মেজবানি মাংস খেতে পারেন। তবে আপনি চাইলে ঘরে বসেও তৈরি করতে পারেন সুস্বাদু ও ঐতিহাসিক গরুর মেজবানি মাংস। অনেকের কাছে এটি খুবই প্রিয় একটি খাবার এবং এটা খেয়ে মজা পান। খেতে ইচ্চা করলে চটপট তৈরি করে ফেলুন।


প্রয়োজনীয় উপকরণ:

গরুর মাংস ২ কেজি, পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ, রসুন বাটা ১ টেবিল চামচ, হলুদ ও মরিচ গুঁড়া ১ টেবিল চামচ, ধনে ও জিরা গুঁড়া ১ টেবিল চামচ, সরিষার তেল ১ কাপ, মাংস মসলা ১ চা চামচ, টক দই ১ কাপ, কাঁচামরিচ ১০/১২, ১ চা চামচ, দারুচিনি ও এলাচ ৫/৬টি, জয়ফল ও জয়ত্রী আধা চা চামচ, মেথি গুঁড়া ১ চা চামচ, লবণ স্বাদমতো।

প্রস্তুত প্রণালী:

প্রথমে মাংস ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিন। একটি পাত্রে মাংস, তেল, টক দই, হলুদ, গোলমরিচ, আদা, রসুন, পেঁয়াজ, লবণ এবং সব মশলা দিয়ে ম্যারিনেট করুন। এরপর তেলে অর্ধেক পেঁয়াজ ভেজে নিন।

প্যানটি ওভেনে রাখুন এবং ম্যারিনেট করা মাংস রান্না করতে থাকুন। এবার প্যানে ২ কাপ পানি যোগ করুন এবং কিছুক্ষণ সিদ্ধ করুন। মাংস থেকে পানি সরে গেলে, মাংস সেদ্ধ না হওয়া পর্যন্ত কম আঁচে রান্না করতে থাকুন।

মাংসের পানি শুকিয়ে এলে কাঁচা মরিচ, ধনে, জিরা গুঁড়া দিয়ে অল্প আঁচে ১০ মিনিট রেখে পেঁয়াজ দিয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন, সুস্বাদু গরুর মেজবানি মাংস।


৩। কাটা মসলা গরুর মাংসের রোস্ট বা বিফ ভূনা

সাধারণত বিশেষ দিনে খিচুড়ি বা পোলাওর সঙ্গে গরুর মাংসের ভুনা খাওয়ার কথা ভাবলেই জিভে পানি আসে। আর এই ভুনা মাংস যদি কাটা মশলা দিয়ে ভুনা হয় তাহলে তো প্রশ্নই আসে না। বিশেষ দিনের আনন্দ দ্বিগুণ হয়ে যায় এতে। চলুন বিফ ভুনার রেসিপি জেনে নিই।

কাটা মসলা গরুর মাংসের রোস্ট বা বিফ ভূনা


 

প্রয়োজনীয় উপকরণ:

 গরুর মাংস কেজি, আদার পেস্ট টেবিল চামচ, রসুন বাটা আধা টেবিল চামচ, জয়ফল জৈত্রি আধা টেবিল চামচ, হলুদ গুঁড়া সামান্য, দারুচিনি, এলাচ, তেজপাতা /, শুকনো মরিচ কুচি ১৫/২০, পেঁয়াজ আধা কাপ, টক দই আধা কাপ, লবণ স্বাদমতো, তেল স্বাদমতো।

 

প্রস্তুতির পদ্ধতি:

প্রথমে টক দই দিয়ে মাংস ভালো করে ম্যারিনেট করে রাখুন আধা ঘণ্টা।এরপর চুলায় পাতিল দিয়ে তেল দিন।  চুলাযর তেল গরম হলে মাংস ছেড়ে দিয়ে ভালো করে ভেজে নিন।

মাংস  ভাজা হলে কাটা পেঁয়াজ এবং শুকনো লঙ্কা যোগ করুন। এবার মাংসে সব মসলা দিয়ে ভালো করে কষিয়ে নিন।

কষানো হলে অল্প পানি দিয়ে ভেজে নিতে হবে। মাংসের ওপর তেল ভেসে উঠলে নামিয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন।

 

৪। গরুর কড়াই গোস্তু রান্নার রেসিপি:

কাশ্মীরি পোলাওর সাথে সবচেয়ে ভালো আইটেম হল গরুর কড়াই গোস্তু তরকারি। খেতে সুস্বাদু। তাই খেতে চাইলে গরুর মাংসের কড়াই নিজেই বানিয়ে নিন।

প্রয়োজনীয় উপকরণ:

গরুর মাংস কেজি, কাটা পেঁয়াজ আধা কাপ, হলুদ মরিচের গুঁড়া টেবিল চামচ, রসুন কুচি /৩টি, মাংস মসলা চা চামচ, দারুচিনি এলাচ / টুকরা, জয়ফল জয়ত্রি বাটা চা চামচ, টক দই কাপ, টমাট কাপ। কাপ, তেজপাতা ২টি, তেল কাপ, লবণ প্রয়োজন মতো।

 প্রস্তুতির পদ্ধতি:

প্রথমে মাংস ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিন। তারপর একটি পাত্রে মাংস, টক দই, লবণ এবং সব মশলা একসঙ্গে মিশিয়ে ২০ মিনিট ম্যারিনেট করে রাখুন। একটি প্যানে তেল গরম করুন এবং অর্ধেক পেঁয়াজ, দারুচিনি, এলাচ, তেজপাতা হালকা বাদামী হওয়া পর্যন্ত ভাজুন। এরপর এতে মেরিনেট করা মাংস মেশান। কাপ পানি যোগ করুন এবং কম আঁচে রান্না করতে থাকুন।

মাংস সেদ্ধ হয়ে মাংসের ওপর তেল ভেসে উঠলে নামিয়ে রাখুন। তেল গরম করে কাটা পেঁয়াজ, রসুন কুঁচি, টমেটো কিউব হালকা বাদামি না হওয়া পর্যন্ত ভাজুন এরপর একটি প্যানে মাংস ২/৩ মিনিট দম দিয়ে নামিয়ে ফেলুন। এখন আপনার প্রিয় গরুর কড়াই গোস্ত তরকারি তৈরি হয়ে যাবে।

 

৫। আলু বোখারা টক ঝাল গরুর মাংস রান্নার রেসিপি

বিশেষ অনুষ্ঠানে খাবার টেবিলে বিভিন্ন ধরনের গরুর মাংস থাকতে হবে। তাই খাবার টেবিলে চমক নতুনত্ব আনতে তৈরি করুন আলু বোখারা টোক ঝাল বিফ। আর হ্যাঁ, খেয়ে দেখুন কত মজা।

 

প্রয়োজনীয় উপকরণ:

গরুর মাংস দেড় কেজি, পেঁয়াজ বাটা আধা কাপ, বাদাম বাটা টেবিল চামচ, পেঁয়াজ কুচি আধা কাপ, আদা বাটা টেবিল চামচ, টক দই কাপ, লেবুর রস চা চামচ, শুকনো চা চামচ মরিচ গুঁড়া, 4/5 সবুজ মরিচ। টি, হলুদের গুঁড়া আধা চা চামচ, আলু বোখারা ১০/১২টি, কিশমিশ বাটা টেবিল চামচ, কাঁচামরিচ /৫টি, ঘি / কাপ, জয়ফল জয়ত্রী বাটা আধা চা চামচ, লবণ পরিমান মতো।

 

প্রস্তুতির পদ্ধতি:

প্রথমে পাতিলে পেঁয়াজ বাদামি করে ভেজে আদা, রসুন, পেঁয়াজ বাটা, লবণ দিয়ে মাংস ঢেলে আবার কষিয়ে নিন। দই, হলুদ, গোলমরিচ, কাঁচামরিচ সামান্য গরম পানি যোগ করে আবার কষিয়ে নিন।

 বাদাম কিশমিশ বাটা এবং আলু বোখারা বাটা অর্ধেক (বীজ ছেড়ে) এবং আলু বোখারার অর্ধেক ছিটিয়ে  মিনিট পর নামিয়ে নিন। এই হলো আলু বোখারা টক ঝাল গরুর মাংস।গোস্তের এই মজার আইটেমটি নতুন।


৬। গরুর মাথার মাংসের ভূনা:

আমিও একসময় গরুর মাথা খেতে ভালোবাসতাম। আমি এখনও এটি করি, তবে আমি এটি আর খাই না কারণ এটি সস্তায় পাওয়া যায় না। আমার মতো অনেকেই গরুর মাংসের চেয়ে গরুর মাথার মাংস পছন্দ করেন। কিন্তু যেনতেনভাবে রান্না করলে কারো ভালো লাগবে না। তাই এই নতুন রেসিপি দিয়ে গরুর মাথার মাংস রান্না করে দেখুন।

 

প্রয়োজনীয় উপকরণ:

গরুর মাংসের মাথা কেজি, পেঁয়াজ কুচি কাপ, টমেটো আধা কাপ, হলুদ গুঁড়া আধা চা চামচ, আদা বাটা চা চামচ, ধনে গুঁড়া আধা চা চামচ, সরিষার তেল আধা কাপ, গোলমরিচ গুঁড়া আধা চা চামচ, তেজপাতা ২টি, গরম মসলা গুঁড়া চা চামচ।

 

কিভাবে রান্না করতে হয় অর্থাৎ প্রস্তুতির পদ্ধতি

তেলে পেঁয়াজ বাদামি করে ভেজে হলুদের গুঁড়া, তেজপাতা, মরিচের গুঁড়া, আদা বাটা, রসুন বাটা, পেঁয়াজ বাটা, টমেটো দিয়ে ভেজে নিন। তারপর যতটা সম্ভব গরম পানি দিয়ে ঢেকে দিন। গরম মসলা গুঁড়া, জিরা গুঁড়া, ধনে গুঁড়া, জয়ফল এবং জৈত্রি গুঁড়া দিয়ে ঢেকে দিন। মাংস সেদ্ধ হয়ে এলে নামিয়ে ভাতের সঙ্গে পরিবেশন করুন।


৭। লেবু পাতা দিয়ে গরুর মাংস:

যে কোনো বিশেষ দিনে পোলাও, খিচুড়ি ছাড়াও অনেক বাড়িতেই মাংসের টেবিলে পরোটা বা ভাতের রুটি থাকে। ছাড়া এবার কোরবানির ঈদে গরুর মাংসের বিভিন্ন আইটেম অনেক বাড়িতে তৈরি করা হয়েছে। আর লেবু পাতা দিয়ে রান্না করলে গরুর মাংসের স্বাদ ভিন্ন হবে। লেবু পাতা দিয়ে গরুর মাংস রান্না করবেন কিভাবে দেখুন।

প্রয়োজনীয় উপকরণ:

গরুর মাংস কেজি, পেঁয়াজ কুচি টেবিল চামচ, হলুদ গুঁড়া আধা চা চামচ, আদা বাটা চা চামচ, রসুন বাটা আধা চা চামচ, জিরা বাটা চা চামচ, ধনে গুঁড়া আধা চা চামচ, লেবুর রস চা চামচ, লবণ স্বাদমতো, কয়েক গরম মসলা, টক দই টেবিল চামচ, গোলমরিচ আধা চা চামচ, লেবু পাতা ৭/১০টি।

প্রস্তুতির পদ্ধতি:

তেল গরম করে পেঁয়াজ বাদামি করে ভেজে গরম মসলা, হলুদ গুঁড়া, মরিচের গুঁড়া, আদা রসুনের পেস্ট, জিরা ধনে, টক দই দিয়ে ভালো করে কষিয়ে নিন। মাংস যোগ করুন এবং ভাল করে ভাজুন।

এবার এতে পরিমান মতো পানি দিন। মাংস সেদ্ধ হয়ে এলে লেবু পাতা লেবুর রস দিন। লেবু পাতা গরুর মাংস ভাতের রোটি বা গরম পারাটার সাথে পরিবেশন করুন।


৮। গরুর মাংস কালা ভূনা:

গরুর মাংসের এই মজার আইটেমটির কথা অনেকেই জানেন। তবে অনেকেই এর আসল রেসিপি জানেন না। এই ঈদে অনেকের মেন্যুতে জায়গা করে নিয়েছে ঐতিহাসিক এই খাবারটি। খুব ভালো টুইট করেছেন।

প্রয়োজনীয় উপকরণ:

গরুর মাংস . কেজি, আদা বাটা টেবিল চামচ, রসুন বাটা আধা চা-চামচ, হলুদ গুঁড়া আধা চা-চামচ, মরিচ গুঁড়া চা-চামচ, ধনে গুঁড়া টেবিল-চামচ, গোলমরিচ গুঁড়া আধা টেবিল-চামচ, এলাচ, দারুচিনি, কয়েকটি তেজপাতা, গরম মসলা, লবণ আধা চা-চামচ। যতটা, সরিষার তেল ততটা, পেঁয়াজ কাটা কাপ।

প্রস্তুতির পদ্ধতি:

গরুর মাংসের সাথে সব উপকরণ একসাথে মিশিয়ে রান্না করুন। মাংস সেদ্ধ হয়ে পানি শুকিয়ে গেলে একটি লোহার প্যানে অল্প আঁচে সরিষার তেলে মাংস ভেজে নিন। যতক্ষণ মাংস কালচে না হয় ততক্ষণ ভাজুন। এই রেসিপিতে গরুর মাংস কালো করে ভাজা হয় বলে একে গরুর মাংস কালা ভূনা বলা হয়।


অন্যন্য রেসিপি জানুন:

খাসির মাংস রান্নার রেসিপি

বিফ দম বিরিয়ানি কিভাবে তৈরি করবেন?

লাচ্চা সেমাইয়ের লাড্ডু তৈরি করবেন কিভাবে?

বোরহানি কিভাবে তৈরি করবেন?

কোলাপুরি চিংড়ি কিভাবে বানাবেন?

Tags

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ
একটি মন্তব্য পোস্ট করুন (0)


#buttons=(Accept !) #days=(20)

Our website uses cookies to enhance your experience. Learn More
Accept !