খাসির মাংস রান্নার রেসিপি

0

খাসির মাংস রান্নার রেসিপি নিয়ে আজকে আলোচনা চলবে। এখানে জনপ্রিয় কয়েকটি খাসির মাংসের রান্নার রেসিপি কিভাবে তৈরি করবেন তা দেখানো হয়েছে। রেসিপিগুলো হচ্ছে-

-খাসির মাংস ভুনা রেসিপি

-খাসির মাংসের ঝোল রেসিপি

-খাসির মাংসের তক্তি পিঠা

-আলু দিয়ে খাসির মাংসের রেসিপি

- নারিকেল দুধে খাসির রেজালা

খাসির মাংস রান্নার রেসিপি


খাসির মাংসের ভুনা রেসিপি

কমবেশি সবারই পছন্দের খাবার হচ্ছে খাসির মাংস। অনেকেই গরুর মাংস খেতে পারেন না বিভিন্ন ধরণের এলার্জি বা রোগের কারণে। তাই তারা খাসির মাংসের প্রতি একটু বেশি লোভনীয় হয়ে থাকেন। খাসির মাংস রান্নার রেসিপি দেখুন কোনটি আপনার ভাল লাগে।

খাসির মাংসের ভুনা রেসিপির উপরকণ:

খাসির মাংস এক কেজি, পেঁয়াজকুচি এক কাপ, পেঁয়াজ বাটা ১/২ কাপ, আদা বাটা 2 চা চামচ, রসুন বাটা 2 চা চামচ, ধনিয়া গুড়া এক চা চামচ, জিরা গুড়া এক চা চামচ, গরম মসলা গুড়া এক চা চামচ, এলাচ পাঁচ ছয়টি, দারুচিনি দুই টুকরা, তেজপাতা দুইটা, লবঙ্গ ৬-৭ টি, কেওড়া জল ১/২ চা চামচ, কাঁচা মরিচ ৭-৮ টি, গুড়া মরিচ ১ চা চামচ, হলুদ গুঁড়া ১/২ চা চামচ, ঘি আধা কাপ, টমেটো এক কাপ, লবণ পরিমাণ মতো, তেল আধা কাপ, গোলমরিচ ৮-৯ টি, টমেটো সস ১ চা চামচ,

 

খাসির মাংস ভুনা রেসিপির প্রস্তুত প্রণালী

প্রথমে খাসির মাংসগুলো টুকরা করে ভালোভাবে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিন। এরপর লবণ, পেঁয়াজ বাটা, আদা বাটা দিয়ে মেখে ৩০ মিনিট রেখে দেন। এরপর একটি প্যানের তেল ও ঘি গরম করে নিন।

তেল গরম হলে এতে এলাচ, তেজপাতা, লবঙ্গ, গোলমরিচ, দারুচিনি দিয়ে হালকা ভেজে নিন। এবার এতে আধা বাটা, রসুন বাটা, পেঁয়াজ কুচি, মরিচ গুড়া, হলুদ গুঁড়া, ধনিয়া গুড়া, জিরা গুড়া, গরম মসলা গুড়া, লবণ ও টমেটো সস দিয়ে ভালোভাবে নেড়ে দিন।

চার পাঁচ মিনিট পর্যন্ত মসলাগুলো ভাজতে থাকুন। এসময় খেয়াল রাখবেন যাতে মসলাগুলো পুড়ে না যায়। এজন্য ঘন ঘন নেড়ে দিন । মসলা কষানোর জন্য আধা কাপ পানি দিয়ে দিন। ভালোভাবে মেরে মসলাগুলো কষিয়ে নিন।

এবার মেরিনেট করে রাখা মাংসগুলো দিয়ে ভালোভাবে নেড়ে দিন এবং টাক না দিয়ে ডেকে ২০-২৫ মিনিট রান্না করুন। এর মাঝে দুই তিনবার মাংসগুলো নেড়ে দিতে হবে।

প্রসেস মিনিট পর খেয়াল করে দেখবেন মাংস থেকে অনেকটা পানি বের হয়ে আসছে। তাই এখন পানি দেওয়ার দরকার নেই। টমেটো কেটে দিয়ে মাংসের সাথে নাড়া দিন। ভালো করে নেরে আবার ঢাকনা দিন। আবারো ২০-২৫ মিনিট রান্না করুন। এর মাঝে দুই তিনবার নেড়ে দিন।

ঝোল শুকিয়ে আসলে দুই কাপ গরম পানি ঢেলে দিন। এরপর ১০-১৫ মিনিট রান্না করে কাঁচামরিচ ভেঙ্গে দিন। এর সাথে কেওড়া জল দিন। ভালোভাবে নেড়ে ১৫-২০ মিনিট রান্না করুন।

এবার আপনি কাটা চামচ দিয়ে খাসির মাংস চেক করে দেখুন সেদ্ধ হয়েছে কিনা। খাসির মাংস সিদ্ধ হলে নামিয়ে ফেলুন।

আর খাসির মাংস যদি সিদ্ধ না হয় তাহলে আরো ১৫-২০ মিনিট চুলায় রেখে দিন। খাসির মাংসের ঝোল মাখা মাখা হয়ে গেলে নামিয়ে ফেলুন। এবার আপনার হয়ে গেল খাসির মাংস ভুনা রেসিপি। তাই গরম গরম পরিবেশন করুন।


খাসির মাংসের ঝোল রেসিপি

উপরে আমরা খাসি মাংসের ভুনা রেসিপি জেনেছি। এখন আমরা খাসির মাংসের ঝোল রেসিপি জানবো। খাসির মাংস রান্নার রেসিপি গুলোর মধ্যে খাসির খাসির মাংসের ঝোল রেসিপি অত্যন্ত জনপ্রিয়। ভুনা এবং ঝোল রেসিপি খুব বেশি রান্না করা হয়।

খাসির মাংসের ঝোল রেসিপি

গরম ভাতের সঙ্গে খাসির মাংসের ঝোল অনেক সুস্বাদ। তাই এই খাবারের কোন তুলনা হয় না। এটির জনপ্রিয় হওয়ার মূল কারণ এটি। আপনার বিশেষ দিনে রান্নার জন্য খাসির মাংসের ঝোল রেসিপি প্রস্তুত করুন।

 

খাসির মাংস রান্নার রেসিপি: ঝোল করার জন্য প্রয়োজনীয় উপকরণ

খাসির মাংস ৬০০ গ্রাম, হলুদ আধা চা চামচ, ধনে গুঁড়ো আধা চা চামচ, জিরে গুঁড়ো আধা চা চামচ, শুকনো মরিচের গুঁড়ো এক চা চামচ, আলু তিনটি, পেঁয়াজ কুচি তিনটি, আদা কুচি ২ চা চামচ, টমেটো একটি এবং পরিমাণ মতো গোলমরিচ, এলাচ, লবঙ্গ, শুকনো মরিচ, তেজপাতা, সরিষার তেল,

 

খাসির মাংসের ঝোল রেসিপির প্রস্তুত প্রণালী

প্রথমে খাসির মাংসগুলো ভালোভাবে ধুয়ে হলুদ, ধনে গুঁড়া, জিরা গুঁড়া, শুকনো মরিচ গুঁড়া, লবণ, চিনি এবং বড় মাপের দুই চামচ সরষের তেল দিয়ে মেরিনেট করে তিন ঘন্টা ফ্রিজে রেখে দিন। এবার যে পাত্রে রান্না করবেন সেই পাত্রে এক চামচ সরিষার তেল দিয়ে প্রথমে আলু ভেজে নিন। আলু ভাজার আগে অল্প লবণ ও হলুদ মেখে নিবেন।

এরপর ওই তেলে তেজপাতা সহ সব শুকনো মসলা দিয়ে দিন। পিয়াজ কুচি দিয়ে ভালো করে নেড়ে মেরিনেট করে রাখা মাংস দিন । এবার এক চামচ আদা বাটা দিন এবং আদা কুচি আর টমেটো টুকরোগুলো দিয়ে নেড়ে দিন।

একটু কষিয়ে নিয়ে ভেগে রাখা আলুগুলো দিন। এক কাপ পানি দিয়ে প্রেসার এর মুখ বন্ধ করে রাখুন। পেশারে তিনটি শিস করার পর ঢাকনা খুলে একবার দেখে নিন। এক্সামিজ গরম মসলার গুড়া দিয়ে আরো পাঁচ মিনিট রান্না করুন। রান্না হয়ে এলে নিজেই বুঝতে পারবেন। এবার রান্না হয়ে এলে চুলা বন্ধ করে দিন এবং গরম ভাতের সাথে পরিবেশন করুন ।

 

খাসির মাংসের তক্তি পিঠা

খাসির মাংসের তক্তি পিঠা অনেকের কাছে খুবই প্রিয় একটি খাবার। খাসির মাংস রান্নার রেসিপি জানবেন আর খাসির মাংসের তক্তি পিঠার রেসিপি জানবেন না তা কি হয়।

খাসির মাংসের তক্তি পিঠা

অল্প উপকরণ আর খুবই সহজ প্রস্তুত প্রণালী দিয়ে তৈরি করুন খাসির মাংসের তক্তি পিঠা।


খাসির মাংস রান্নার রেসিপি- তক্তি পিঠা তৈরি করার উপকরণ

এক কাপ হাড়বিহীন কিমা করা মাংস (ছিন্ন করা), এক কাপ কাটা পেঁয়াজ, রসুনের কিমা ১ টেবিল চামচ,  পরিমানমতো মরিচ ফ্লেক্স, ধনে পাতা 2 টেবিল চামচ, জিরা গুঁড়া ১ চা চামচ, আধা কাপ তেল, একটি ডিম ও চালের গুঁড়া 2 কাপ।


খাসির মাংসের তক্তি পিঠার রেসিপি প্রস্তুত প্রণালী

উপরের খাসির মাংসের তক্তি পিঠার বানার সব উপকরণগুলো ভালো করে মিশিয়ে একটি কলা পাতায় মুড়িয়ে একটি পাতলা বিস্কুটের আকারে একটি প্যানে উচ্চ আঁচে ভেজে নিন। গ্রামে, এটি সরাসরি চুলার আগুনে দেওয়া হয়।

যদি ইচ্ছা হয়, আপনি 220 ডিগ্রি তাপমাত্রায় ওভেনে বেক করতে পারেন। সেক্ষেত্রে কলা পাতার প্রয়োজন নেই। বিস্কুটের মতো ভেজে টুকরো করে কেটে সরিষার চাটনি বা কাসুন্দির সঙ্গে পরিবেশন করুন।


আলু দিয়ে খাসির মাংসের রেসিপি

খাসির মাংস রান্না রেসিপি গুলোর মধ্যে আরও একটি জনপ্রিয় রেসিপি আছে আলু দিয়ে খাসির মাংসের রেসিপি। দুপুরে খাবার আইটেমে এই রেসিপিটি বেশ জনপ্রিয়।

আলু দিয়ে খাসির মাংসের রেসিপি

ম্যারিনেট কারার উপকরণ

খাসির মাংস এক কেজি, টক দই ১০০ গ্রাম, আদা বাটা আদা চা চামচ, রসুন বাটা আধা চা চামচ, লঙ্কা বাটা আধা চা চামচ, কাশ্মীরি লঙ্কার গুঁড়ো এক চা চামচ, লঙ্কার গুড়া এক চামচ, হলুদ গুঁড়া আধা চামচ, ধনে গুড়া আধা চামচ, জিরা গুড়া এক চা চামচ, লবণ পরিমাণ মতো, সরিষার তেল ৩ টেবিল চামচ,

 

রান্নার উপকরণ

তেজপাতা একটা, শুকনো লঙ্কা দুইটা, দারুচিনি দুই টুকরো, এলাচ চারটি, লবঙ্গ পাঁচটি, গোলমরিচ ছয়টা, গোটা সাদা জিরা এক চা চামচ, এছাড়াও ঝোলের উপকরণগুলো হচ্ছে-

টুকরো করে কাটা আলো চারটি, পিয়াজ কুচি দুইটা, চিনি আধা চা চামচ, আদা বাটা এক চা চামচ, রসুন বাটা এক চা চামচ, লঙ্কার গুড়া এক চা চামচ, হলুদ গুঁড়া এক চা চামচ, কাশ্মীরে লঙ্কার গুঁড়া আধা চা চামচ, গরম মসলা গুড়া এক চা চামচ, গোল মরিচ গুড়া আধা চা চামচ, টমেটো কুচি দুই টি, ধনে গুঁড়া এক চা চামচ,

 

খাসির মাংস মেরিনেট করার প্রণালী

প্রথমে মাংসগুলো ছোট টুকরো করে কেটে ভালো করে ধুয়ে নিন। পানি ঝরিয়ে একটি পাত্রে ম্যারিনেট কারার উপকরণগুলো দিয়ে কয়েক মিনিট সময় নিয়ে ভালো করে মেখে নিন।

সমস্ত উপকরণগুলো খুব ভালো করে মাখা হয়ে গেলে মাংস মেরিনেশন এর জন্য এক ঘন্টা ঢেকে রাখুন কিংবা ফ্রিজে রেখে দিন।

 

আলু দিয়ে খাসির মাংস রান্না প্রণালী

রান্নার পাত্র গ্যাসে বসে পরিমাণ মতো সরষের তেল গরম গরম করুন। এতে সামান্য হলুদ ও লবণ দিয়ে নাড়ুন। আগে থেকে আলু টুকরো গুলো লাল করে ভেজে নিন এবং ওই তেলের মধ্যে এক চামচ সাদা জিরে, একটা তেজপাতা, দুইটা শুকনো লঙ্কা, দারুচিনি দুই টুকরা, চারটে এলাচ, পাঁচটা লবঙ্গ, ছয়টা গোলমরিচ দিয়ে কয়েক সেকেন্ডের মতো ভাজুন ।

এবার রান্না করার উপকরণগুলো দিয়ে ভালো করে কষিয়ে নিন। মসলাগুলো থেকে তেল বেরিয়ে এলে এর মধ্যে মেরিনেট করে রাখা মাংস গুলো দিয়ে মিডিয়াম- হাই ফ্লেমে পাঁচ মিনিট ধরে কষিয়ে নিন।

১০ মিনিট পর গ্যাসের আজ কমিয়ে ৫ মিনিট ঢেকে রাখুন। এরপর ঢাকনা খুলে নাড়ুন। এবার কয়েক মিনিট পর ভিজিয়ে রাখা আলু এর মধ্যে দিয়ে তিন চার মিনিট নাড়তে থাকুন।

এবার সবকিছু প্রেসার কুকারে দিয়ে রান্না করুন। রান্না হয়ে গেলে চুলা বন্ধ করে দিন। চুলা থেকে পাত্র নামিয়ে গরম ভাতের সাথে পরিবেশন করুন ।

 

নারিকেল দুধে খাসির রেজালা: খাসির মাংস রান্নার রেসিপি

নারিকেল দুধে খাসির রেজালা বেশ জনপ্রিয় একটি খাবার। অনেকেই এটি এতবেশি পছন্দ করেন যে, অন্য কোন তরকারির আইটেম ছুয়েও দেখেন না।

যাইহোক, নারিকেল দুধে খাসির রেজালা কিভাবে তৈরি করবেন তা জানুন।

নারিকেল দুধে খাসির রেজালা: খাসির মাংস রান্নার রেসিপি


প্রয়োজনীয় উপকরণ:

এক কেজি খাসির মাংস, এক কাপ কাটা পেঁয়াজ, দুই টেবিল চামচ আদা পেস্ট, রসুন এক চা চামচ,  এলাচ ৪টি, দুই  টুকরা দারুচিনি, এক কাপ দই,  আধা কাপ তেল বা ঘি, চিনি 1 টেবিল চামচ, লবণ পরিমাণ মতো,  দেড় কাপ নারকেল দুধ,  দুধ (স্বাদ অনুযায়ী), ৫ টি কাঁচা মরিচ,  নারকেল ফ্লেক্স 2 টেবিল চামচ।


নারিকেল দুধে খাসির রেজালা প্রস্তুত প্রণালী

প্রথমে পেঁয়াজ বাদামি না হওয়া পর্যন্ত ভাজুন এবং অন্য একটি পাত্রে তার অর্ধেক রাখুন। এরপর তেলে মাংস কিছুক্ষণ ভেজে দুধ, কাঁচা মরিচ, নারকেল বাদে বাকি সব মসলা দিয়ে ভালো করে কষিয়ে নিন।

এবার মাংস একটু নরম হয়ে এলে দুধ যোগ করুন এবং ফুটে উঠা পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। মাংস মেশানো হয়ে গেলে নারকেল কুচি ও কাঁচা মরিচ দিয়ে চল্লিশ মিনিট কম আঁচে রান্না করুন।

তারপর নামিয়ে পরিবেশন করুন। আপনি চাইলে ওপরে বেরেস্তা লাগাতে পারেন, তবে বেরেস্তার তীব্র ঘ্রাণে নারকেলের ঘ্রাণ হারানোর আশঙ্কা থাকে।


Tags

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ
একটি মন্তব্য পোস্ট করুন (0)

#buttons=(Accept !) #days=(20)

Our website uses cookies to enhance your experience. Learn More
Accept !