টোফেল কি? What is TOEFL (Test of English as a Foreign Language)? রেজিস্ট্রেশন করবেন কিভাবে?

যাদের মাতৃভাষা ইংরেজি নয়, তারা যদি ইংরেজি প্রধান দেশের বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হতে চান তাহলে তাকে টোফেল পরীক্ষা দিয়ে স্কোর অর্জন করতে হবে। TOEFL = Test of English as a Foreign Language একটি কম্পিউটারাইজড ইংরেজি দক্ষতা যাচাই প্রক্রিয়া। সাধারণত ইংরেজি ভাষার দক্ষতা যাচাই তথা TOEFL কিংবা IELTS স্কোর অর্থাৎ ইংরেজি প্রধান দেশে বিশ্ববিদ্যালয় পড়তে চাইলে আপনাকে TOEFL কিংবা IELTS স্কোর অর্জন করতে হবে। আজকের ইনফোতে আমরা টোফেল নিয়ে আলোচনা করবো।  টোফেল এর বর্তমান যে ভার্সন চালু রয়েছে, তাকে ইন্টারনেটবেজ টোফেল বলা হয়। (Internet Based TOEFL or iBT)

টোফেল কি? What is TOEFL (Test of English as a Foreign Language)? রেজিস্ট্রেশন করবেন কিভাবে?
ছবি: টোফেল ওয়েবসাইটের

আপনি ইংরেজিতে কতটা দক্ষতা অর্জন করেছেন তা টোফেল স্কোর বলে দিবে। বিষয়টা আরো সহজভাবে বলি, আপনি যদি ইউএস কিংবা কানাডা বিশ্ববিদ্যায়ে পড়তে চান, তাহলে যে বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তে চান সেই বিশ্ববিদ্যালয়ে টোফেল স্কোর জমা দিতে হবে।মোট কথা বিদেশে ইউনিভার্সিটিতে পড়তে গেলে একজন শিক্ষার্থীর জন্য TOEFL কিংবা IELTS স্কোর প্রয়োজন হয়ে থাকে।

টোফেল কি

টোফেল কয়েকটি ওয়ার্ডের সমন্বয় যার অর্থ হচ্ছে - TOEFL = Test of English as a Foreign Language একটি কম্পিউটারাইজড ইংরেজি দক্ষতা যাচাই প্রক্রিয়া। অর্থাৎ আপনি ইংরেজিতে কতটা দক্ষতা অর্জন করেছেন তা এই পরীক্ষার মাধ্যমে যাচাই করা হয়।

টোফেলের পরীক্ষা পদ্ধতি কি?

মোট চারটি সেকশনের উপর টোফেলের পরীক্ষা নেওয়া হয়। সেকশন চারটি হচ্ছে- রিডিং সেকশন, লিসেনিং সেকশন, স্পিকিং সেকশন ও রাইটিং সেকশন। নিচে সেকশনগুলোর বিস্তারিত আলোচনা করা হলো।


১) টোফেলের রিডিং সেকশন

টোফেলের এই সেকশনে সাধারণত তিনটা প্যাসেজ থাকে। প্রতিটি প্যাসেজ থেকে প্রায় ১৪ টা করে প্রশ্ন থাকে। এই সেকশনে মোট ৪২ টি প্রশ্নের জন্য মোট সময় পাবেন এক ঘন্টা।

অনেক সময় প্যাসেজের সংখ্যা চারটাও হতে পারে। সেক্ষেত্রে মোট প্রশ্নের সংখ্যা ৫৬ টাও হতে পারে। এর জন্য অবশ্য ২০ মিনিট সময় বেশি বরাদ্ধ থাকে।

অধিকাংশ মানুষের ক্ষেত্রে এই সেকশনে ৩টা প্যাসেজ থাকে। তবে পরীক্ষার হলে চারটা প্যাসেজ দেখে ঘাবরে যাবেন না। অনেকেই বিষয়টি না জানার কারণে পরীক্ষার হলে ৪ টা প্যাসেজ দেখে ঘাবরে যান। অনেকে আবার এটাকে এক্সপেরিমেন্টাল হিসাবে ভেবে নিয়ে ইচ্ছামত উত্তর দিয়ে থাকেন।

সুতরাং নতুন প্যাসেজ আসলেও তাকে আগের গুলোর মতোই গুরুত্ব দিতে হবে এবং সবগুলো প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে।

রিডিং সেকশনে প্রশ্নের ধরণ

টোফেল এর এই সেকশনে বেশিরভাগ প্রশ্নেই এমসিকিউ টাইপের হয়ে থাকে। সাধারণত Vocabulary নিয়ে প্রশ্ন থাকে, inference (অমুক লাইন থেকে কি ধারণা করা যায়, এমন টাইপের) প্রশ্ন আসতে পারে এবং Sentence Simplification জাতীয় প্রশ্ন থাকে।

এছাড়াও আরো দুই ধরণের প্রশ্ন থাকে। যেমন- Insert Text Question & Reading to Learn Question

১) Insert Text Question

এই প্রশ্নও অনেকটা MCQ টাইপের মতোই, সাধারণত MCQ তে আমরা যে রকম প্রশ্ন দেখি ঠিক ওই রকম না। এখানে একটা লাইন দেওয়া থাকে এবং একটা প্যাসেজ দেওয়া থাকবে।

প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার জন্য চারটা পজিশন মার্ক করা থাকবে। এই চারটা পজিশনে কোন জায়গায় লাইনটা সবচেয়ে বেশি ফিট খায়, সেখানে আপনাকে লাইনটা বসাতে হবে।

২) Reading to Learn Question

এটা আবার দুই টাইপের হতে পারে। যেমন- Prose Summary question এবং Fill in a Table question

Prose Summary question- এটাতে এমসিকিউ টাইপের মতো একাধিক অপশন এবং উত্তর একাধিক থাকে। যেমন- একটা প্যাসেজ দিয়ে সেটার ব্যাপারে ৭টা লাইন আপনাকে দিয়ে বলা হলো যে, উল্লেখিত এই ৭টি লাইনের মধ্যে কোন তিনটা লাইন দিয়ে প্যাসেজটির সারমর্ম সবচেয়ে ভাল প্রকাশ করা যায়। এখানে উত্তর ঐ তিনটা লাইন দিতে হবে।

Fill in a Table question- মনে করুন একটা প্যাসেজ এ দুই ধরণের বিষয় দেওয়া রয়েছে। এরপর এখান থেকে কয়েকটা লাইন আপনাকে দেওয়া হলো। উত্তর চাওয়া হবে লাইনগুলো সঠিক ক্যাটাগরিতে সাজানো।

অর্থাৎ ধরা যাক প্যাসেজটিতে দুটি বিষয় একটা forest অপরটি environment নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে। আপনাকে দেওয়া লাইনগুলো থেকে এই দুই ক্যাটাগরির লাইনগুলো বেচে নিতে হবে।

এক্ষেত্রে অপশনের সংখ্যা বেশি থাকতে পারে। প্রয়োজনের বেশি অপশন থাকবে অর্থাৎ বেচে নেওয়ার পরও কিছু অপশন বাকি থাকতে পারে।

 

২) টোফেলের লিসেনিং সেকশন

এই সেকশনে বিভিন্ন বিষয়ের ওপর একজনের বক্তব্য কিংবা দুজনের কথোপকথন শুনতে হবে এবং সেই অনুযায়ী প্রশ্নে উত্তর দিতে হবে। এক্ষেত্রে আপনি শুনতে শুনতে রাফ কাগজে নোট নিবেন। কেননা বক্তব্য বা কথোপকথন শেষ হলে প্রশ্ন চলে আসবে।

এখানে প্রতিটি প্রশ্ন টাইপের সাথে কিছু Note Taking strategy দেওয়া থাকবে। সেগুলো ভাল করে ফলো করতে হবে। শুধু লিসেনিং এ নয়, Speaking এবং Writing এর মধ্যেও এগুলো লাগবে।

এই সেকশনে সাধারণত ৬০ মিনিটে ৬টি কাজ করতে হয়, কারো কারো ক্ষেত্রে ৯ টা টাস্ক থাকে। তবে তখন সময় বাড়িয়ে ৯০ মিনিট দেওয়া হয়। আপনার ক্ষেত্রে Reading সেকশনে তিনটার জায়গায় যদি চারটা প্যাসেজ চলে আসে তাহলে এই (Listening) সেকশনে নয়টা টাস্কের সম্ভবনা খুবই কম বা নেই বললেই চলে।

লিসেনিং সেকশনে প্রশ্নের ধরণ

এখানে কয়েক ধরণের প্রশ্ন করা হবে। যেমন- Basic Comprehension Question, Program Understanding Question, Connecting Information Question ইত্যাদি। নিচে প্রশ্নের ধরণগুলোর বিস্তারিত দেওয়া হলো।

 

Listening: Basic Comprehension Question

পুরো বক্তব্যের সারমর্ম কিংবা বক্তেব্যের বিশেষ খুঁটিনাটি নিয়ে এই জাতীয় প্রশ্ন করা হবে। যেমন- এই বক্তব্যের কিংবা কথপকথনের মূল বিষয়বস্তু কি? এই কনভার্সেশনের প্রধান উদ্দেশ্য কি? অথবা নির্দিষ্ট কিছু বিষয়ের ওপর বেস করে বলা হতে পারে ঐ জিনিসটা কেন ঘটলো- এধরণের কিছু MCQ প্রশ্ন থাকবে, আপনাকে শুধু সঠিক উত্তরটি বাছাই করতে হবে।

Listening-Note Taking Strategy: বক্তব্য বা কথপকথনটি থেকে আপনি কতটুকু কার্যাকরভাবে নোট নিতে পেরেছেন তার উপর নির্ভর করবে অনেকটা। মূখ্য বিষয়বস্তুগুলো কি তা আইডেন্টিফাই করে একেকটা টাইটেল ঠিক করে নিন এবং সেই টাইটেলের নিচে নিচে নোট নিতে থাকুন। পুরো লাইন লেখা কখনই সম্ভব না, তাই পুরো লাইন লেখে সময় নষ্ট করার প্রয়োজন নেই। শুধুমাত্র কিওয়ার্ডগুলো লিখে রাখুন, যাতে key-word দেখলেই মনে পড়ে যায় কি বিষয় নিয়ে কথা হচ্ছিলো এবং সেখানে কি বলা হয়েছে।

 

Listening: Program Understanding Question

যে বক্তব্য বা কথপকথন এতক্ষণ শুনলেন তা থেকে কি বুঝলেন, সেটা যাচাই করার জন্য এই ধরণের প্রশ্ন করা হয়। বক্তব্য বা কথপকথনের একটা বিশেষ লাইন আবার শোনানো হতে পারে, লাইনটি শোনানোর পর প্রশ্ন করা হতে পারে যে, এই লাইনটা দিয়ে আসলে লোকটা কি বোঝাতে চেয়েছিল। কিংবা Speaker এর ‍attitude জানতে চাওয়া হতে পারে।

মনে করুন, কোন এক লেখক কে নিয়ে অনেকক্ষণ বক্তব্য দিল। এখন আপনার কাছে জানতে চাওয়া হতে পারে যে, এই বক্তব্যটি উক্ত লেখককে অত্যাধিক পছন্দ করে , নাকি মোটামুটি পছন্দ করে, নাকি লেখকে বক্তা দুই চক্ষে দেখতে পারে না ইত্যাদি।

Program-Note Taking Strategy: আপনি যদি বক্তব্য শুনার সময় খেয়াল করেন তাহলে বুঝতে পারবেন। যেমন- The author’s impressively written book The Da Vinci Code এই লাইনটির মধ্যে impressive শব্দটি শুনে বুঝে যাওয়ার কথা বক্তা লেখককে কেমন পছন্দ করেন।

বক্তব্য শুনার সময় এমন কিছু বিশেষণ শব্দের নিচে আন্ডারলাইন করে রাখতে পারেন। শুনতে শুনতে এমন কিছু শব্দ বুঝবেন যেগুলোতে বক্তা একটু জোড় দিচ্ছে, এগুলো আন্ডারলাইন করুন।

 

Listening: Connecting Information Question

এধরণের প্রশ্নে তখ্য লিংক বের করতে হবে। অর্থাৎ পুরো বক্তব্য কিংবা কথপকথনে বিভিন্ন তথ্যের মধ্যে লিংক খুঁজে বের করতে হবে। যেমন ধরেন- দুজনের মধ্যে কথপকথনের সময় একজন বলল যে, সে এই বছর থিসিস সাবমিট করবে না। কেন এই সিদ্ধান নিলো তা নিশ্চয় সে বক্তব্যের কোথাও না কোথার পরিস্কার করে বলেছে। সেটাকে অপশন থেকে সিলেক্ট করতে হবে। একাধিক কারণও থাকতে পারে । সেক্ষেত্রে সবগুলোকেই বাছাই করে নিতে হবে।

Connecting-Note Taking Strategy: টাইটেল লেখার সময় বড় বড় করে লেখুন কিংবা টাইটেলের চারপাশে বৃত্ত এঁকে রাখুন সহজেই চোখে পড়ার জন্য। এতে আপনার সময় বাঁচবে এবং অন্য কোন দিকে হাতড়াতে হবে না। যেমন- উক্ত ক্ষেত্রে বক্তা যখন থিসিস সাবমিট করবেন এটাকে FACT টাইটেলের মধ্যে রাখুন এবং যখনই এর কারণ বলা আরাম্ভ করবে সেটাকে CAUSE টাইটেলে রাখুন। এই বিষয়ে ভিন্নজন যখন এই বিষয়ে কিছু সাম্ভাব্য সমাধান দিবে তখন তা Solution টাইটেলে রাখুন।

এখন, প্রশ্নে যদি কারণ জিজ্ঞাসা করা হয় তাহলে CAUSE টাইটেলে যা লেখেছেন সেখানে নজর দিন। অন্য কোন দিকে তাকানোর দরকার নেই।

অথবা এমনও হতে পারে যে, বক্তব্যে ফরেস্ট আর এনভায়রনমেন্ট নিয়ে কথা বলছিলো এবং এই বিষয়ে অনেকগুলো উদাহরণ দিয়েছে। অর্থাৎ কিছু উদাহরণ ফরেস্ট এর জন্য এবং কিছু উদাহরণ এনভায়রমেন্ট এর জন্য দিয়েছে। নোট নেওয়ার সময় খেয়াল করতে হবে যে, কোন উদাহণ কিসের জন্য দেওয়া হয়েছে।

এটা খুব সহজেই নোট নিতে পারবেন যদি দেখেন যে দুটি বিষয় নিয়ে কথা বলছে, তাহলে দুটি কলাম বানিয়ে ফেলুন এবং নোট করুন। যখন যে বিষয়ে কথা বলছে তখন সেই কলামে নোট করুন। একটানা প্যারাগ্রাফ না লিখে এভাবে নোট করলে সহজেই তথ্য খুঁজে পাবেন। যেমন- এনভায়রমেন্ট এর কোন প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে ফরেস্ট কলাম দেখারই প্রয়োজন হবে না।

 

৩) টোফেলের স্পিকিং সেকশন

TOEFL (Test of English as a Foreign Language) এর সবচেযে সংক্ষিপ্ত সেকশন হচ্ছে এটি। গোটা সেকশন মাত্র ২০ মিনিটের মধ্যেই শেষ হয়ে যাবে। সাধারণত দশ মিনিট ব্রেক পাবেন স্পিকিং সেকশন শুরু হওয়ার আগে। এই সেকশনে দু ধরণে টাস্ক থাকে। যথা- Independent Task ও Integrated Task

 

Speaking: Independent task                                                                 

সাধারণত Independent task বলা হয় এই কারণে যে, এখানে স্পিকিং ছাড়া অন্য কোন বিষয় থাকে না।

পরীক্ষায় ধরনের টাস্ক  দুইটা থাকতে পারে। আপনার পরিচিত কোন টপিক নিয়ে ৪৫ সেকেন্ড বলতে বলা হবে, প্রিপারেশনের জন্য সময় পাবেন ১৫ সেকেন্ড। তবে টপিকগুলো খুবই সহজ সহজ এর উত্তর দিতে আপনার তেমন কোন বেগ পেতে হবে না।

উদাহরণ স্বরুপ: যেমন- How do you want to celebrate your birthday- with some really close friends? Or with a lot of friends and relatives as in a party? ইত্যাদি।

 

Speaking: Integrated Task

এর আওতায় আপনাকে একটি প্যারাগ্রাফ পড়তে হবে কিংবা কোন একটা বক্তব্য বা কথপকথন শুনতে হবে। এরপর এর ওপর ভিত্তি করে প্রশ্ন করা হবে এবং সেটার ওপর বলতে বলা হবে।

উদাহরণ স্বরুপ- মনে করুন, হোস্টেলে থাকার সুবিধা ও অসুবিধা নিয়ে একজন ছেলে ও একজন মেয়ে কথা বলছে। ছেলেটা হোস্টেলে থাকার পক্ষে এবং মেয়েটা হোস্টেলে থাকার বিপক্ষে ব্যাপক যুক্তি দেখালো। শেষে অবশ্য কেউ কারো কথা মানলো না।

এক্ষেত্রে ছেলেটা কেন হোস্টেলে থাকার পক্ষে, সেটা আপনাকে বলতে বলা হতে পারে। কিংবা কার যক্তি বেশি গ্রহণযোগ্য মনে হয়, সেটাও বলতে বলা হতে পারে।

এছাড়াও লিসেনিং সেকশনের নোট নেওয়ার স্ট্র্যাটেজিগুলো এখানে কাজে লাগাতে হবে। এ টাইপের চারটি টাস্ক থাকবে।

 

৪) টোফেল রাইটিং সেকশন

বাংগালী শিক্ষার্থীদের জন্য সবচেয়ে স্বস্তিকর সেকশন হচ্ছে টোফেল রাইটিং সেকশন। কেননা বাংগালীদের লিখতে কখনো কোন সমস্যা হয় না। Speaking সেকশনের মতই এই সেকশনে দুই ধরণের টাস্ক থাকবে। যথা- Independent Task ও Integrated Task

Writing: Independent Task

এই কাজটা অনেকটা ভাব-সম্প্রসারণের মত লেখতে হবে আপনাকে। একটি টপিক দিবে ২০ মিনিটে কমপক্ষে ১৫০ ওয়ার্ডের রচনা লিখতে হবে। যাদের লেখার অভ্যাস ভালো তারা হয়তো অনেক কম সময়েও এটি লিখতে পারেন।

Writing: Independent Task

বুজতেই পারছেন লেখালেখি ছাড়াও এখানে আরো কিছু কাজ রয়েছে। এই টাস্কের আওতায় আপনাকে প্রথমে একটি ছোট প্যাসেজ পড়তে দেওয়া হবে এবং এর বিষয়বস্তু নিয়েই একটা বক্তব্যও শোনানো হবে। এখান থেকে আপনাকে নোট নিতে হবে। পূর্বের Strategy গুলো পাশাপাশি এখানে আরেকটা strategy উল্লেখযোগ্য।

Writing-Note Taking Strategy: প্রথমে যে প্যাসেজ পড়বেন অর্থাৎ প্যাসেজ পড়ে একটা স্ট্রাকচার দাড় করিয়ে নিন। প্যাসেজটিকে কয়েকটি ভাগ করে প্রতিটি ভাগের জন্য একটা টাইটেল দিন। এরপর বক্তব্য চলাকালে প্রতিটি টাইটেলের নিচে রিলেটেড ইনফরমেশনগুলো টুকে নিন।

উদাহরণ-স্বরুপ: যেমন ধরুন, আপনাকে যে প্যাসেজ দেওয়া হলো সেখানে ওয়ামিং ঠেকানোর তিনটা উপায় বলা হয়েছে। এরপর বক্তব্যে উদাহরণ সহ ব্যখ্যা দেওয়া হলো যে, উপরোক্ত উপায় তিনটির আসলে কোনটাই কার্যাকর না।

প্যাসেজটা পড়ে তিনটা উপায়ের জন্য তিনটা টাইটেল দিলেন। এরপর বক্তব্য চলার সময় কোন উপায়টা কেন কার্যাকর না উদাহরণ দেওয়ার সময় উক্ত টাইটেলের নিচে নোট করুন। কারণ ও উদাহরণ এর কিওয়ার্ড দিয়ে নোট করুন। এভাবে নোট নিলে লেখার একটা স্টাকচারও তৈরি হয়ে যাবে।

এখানে আপনার কাজ হবে কমবেশি ৩০০ ওয়ার্ডের মধ্যে একটা রচনা সাজানো এবং এর জন্য সময় পাবেন ৩০ মিনিট। তাই নোটের কি ওয়ার্ড এর ওপর নজর দিলেই একটা essay সহজেই তৈরি হয়ে যাবে।

 

টোফেল স্কোর প্যাটার্ন কি?

টোফেলে প্রতিটি সেকশনে ৩০ নাম্বারের পরীক্ষা হয়। মোট নাম্বার হচ্ছে ১২০ অর্থাৎ সবগুলো সেকশন মিলে ১২০ নম্বরের পরীক্ষা দিতে হবে।

নাম্বার প্রাপ্ত হয় সমান হারে। অর্থাৎ নম্বর বাড়ে এক এক করে। তাই টোফেলে ৯৯.৫ নম্বর পাওয়া যায় না; হয় ৯৯ নতুবা ১০০।

বেশিরভাগ বিশ্ববিদ্যালয়ে কমপক্ষে প্রয়োজন হয় ৮০ এর কাছাকাছি। তাবে কিছু বিশ্ববিদ্যালয়ে ১০০ বা ১০৫ চাওয়া হয়ে থাকে। তবে এটি খুবই নগন্য। আপনাকে মনে রাখতে হবে, এসিস্ট্যান্টশিপ কিংবা স্কলারশিপ এর জন্য Speaking সেকশনে কমপক্ষে ২৩ নম্বর পেতে হবে।

 

আইইএলটিএস এর চেয়ে টোফেল সুবিধাজনক কেন?

IELTS পরীক্ষায় সাধারণত সময় ক্ষেপন হয়ে থাকে। অনেক সময় ১২ টায় পরীক্ষা শুরু হওয়ার কথা থাকলেও শুরু হয় অনেক পরে, এতে আত্মবিশ্বাস কমে যায়।

আইইএলটিএস এর স্পিকিং এর জন্য আলাদা এক দিন সময় দিতে হবে এবং অধিকাংশ ক্ষেত্রে স্কোর কালেক্ট করতে হবে ব্রিটিশ কাউন্সিল গিয়ে। এছাড়াও  IELTS এর স্কোর সেন্ডিং প্রসেস তুলনামূলক জটিল। তবে কম্পিউটার বেসড IEFT পরীক্ষা এক দিনে সম্পূর্ণ হয়। আলাদা করে স্পিকিং দেওয়ার প্রয়োজন হয় না। বিস্তারিত জানতে “IELTS পরীক্ষা কি? কারা কেন কিভাবে দিবেন?” ইনফোটি দেখুন।

যদিও কিছু বিশ্ববিদ্যালয়ে ইলেক্ট্রনিক্যালি স্কোর সেন্ড করা যায়, IELTS এর প্রতি স্কোর সেন্ড করতে তুলনামূলক খরচ বেশি হয়ে থাকে।

টোফেলে চারটি বিশ্ববিদ্যালয়ে ফ্রি স্কোর সেন্ড করা যায়। এরপর প্রতি স্কোরের জন্য খরচ বহন করতে হবে। তবে এটা IELTS এর চেয়ে কম হয়ে থাকে।

এছাড়াও ইউএস এবং কানাডায় টোফেলের গ্রহণযোগ্যতা বেশি রয়েছে। তুর্কি বিশ্ববিদ্যালয়গুরো টোফেল স্কোর গ্রহণ করছে।

আরো জানুন: পিটিই কি? What is PTE? 


টোফেল রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া কি?

সাধারণত টোফেল টেস্টের চার সপ্তাহ আগে রেজিস্ট্রেশন করতে হয়। দুইভাবে রেজিস্ট্রেশন করতে পারেন। লোকাল অফিসে উপস্থিত হয়ে অথবা ইন্টারনেটের মাধ্যমে। ইন্টারনেটে সাইনআপ করার জন্য ভিজিট করুন - www.toefl.org

রেজিস্ট্রেশন সংক্রান্ত তথ্য অনলাইনে দেখতে ভিজিট করুন - www.ets.org/toefl/toefl/ibt/register

কোন শিক্ষার্থী যদি কাংখিত স্কোর তুলতে না পারেন তাহলে একাধিকবার টেস্ট দেওয়ার সুযোগ পাবেন। তবে বছরে ৫ বারের বেশি টেস্ট দেওয়া যাবে না।

একবার রেজিস্ট্রেশন করলে চারটি বিশ্ববিদ্যালয় ফ্রি স্কোর পাঠানো যায়। এক্ষেত্রে মনে রাখবেন, ফ্রি স্কোর পাঠাতে হবে পরীক্ষার হলে যাওয়ার আগে।

এই বিষয়ে আরো তথ্য জানতে অফিসিয়াল ওয়েবসাইট ভিজিট করুন। অফিসিয়াল ওয়েবসাইট - http://www.ets.org/toefl

 

টোফেল TOEFL (Test of English as a Foreign Language) পরীক্ষা কেন্দ্রসমূহ:

American International University-Bangladesh

Road#21, House # 58/B

Kemal Ataturk Avenue, Banani

Dhaka – Bangladesh 1213

(Beside Banan AIUB Campus – Opposite Side of Iqbal Center – AIUB, Campus-5

88-02-55034165 Ext:443

 

DNS Software Ltd.

Paragon House 5 Mohakhali C/A, 4th Floor

Dhaka – Bangladesh 1212

 

IUBAT – International University of Business Agriculture and Technology

4 Embankment Drive Road

(Off Dhaka-Ashulia Road)

Sector 10, Uttara Model Town

Dhaka – Bangladesh 1230


US Software Limited

69/B Panthapath

Dhaka – Bangladesh

 

টোফেল (TOEFL) প্রস্ততি কিভাবে নিবেন?

যে কোন পরীক্ষা প্রস্ততি নেওয়া মানে নিজেকে কঠিন চাপের মধ্যে ফেলে দেওয়া। উপরের তথ্যগুলো জেনে অবশ্যই আপনার ধারণা হয়েছে যে, টোফেল পরীক্ষার জন্য কি রকম প্রিপারেশন নিতে হবে।

বেশিরভাগ শিক্ষার্থীর মনের মধ্যে এমন ভয় থাকে যে, আমি কি পুরোপুরি পরীক্ষার জন্য প্রস্তুত? অনেকেই এই বিষয়টি জানি না যে, এরকম ভয় পরীক্ষার প্রস্ততিকে দুর্বল করে ফেলে।

সুতরাং যে কোন পরীক্ষার প্রস্ততি এলোমেলো ভাবে নেওয়া উচিত নয়, সঠিক দিক নির্দেশনা ও পরিকল্পনা অনুযায়ী প্রস্ততি নিলে সফল হওয়া সহজ হয়ে যায়। টোফেল প্রস্ততি নিতে কত দিন লাগবে? এর কোন সীমারেখা নেই। যার মেধা ও নিষ্ঠা যেরকম সেই অনুযায়ী সময় লেগে যেতে পারে।

টোফেল (TOEFL) প্রস্ততি নেওয়ার জন্য নিচের বিষয়গুলো বিবেচনা করুন:

** ইংরেজিতে দক্ষতা বাড়ানো। যেমন- ইংরেজি ব্যাকরণ, শব্দচয়ন ও উপস্থাপনায় কৌশলী হওয়া।

** নোট করার ক্ষেত্রে নিজেকে দক্ষ করা

** প্রতিদিন নিয়মিত পডকাস্ট শুনা

** নিয়মিত ইংরেজি পত্রিকা পড়া

** টোফেল টেস্ট দেওয়া। এরফলে পুরো পরীক্ষা কাঠামো আয়ত্তে চলে আসবে

** প্রতিদিন নিয়মিত পড়াশুনা করা

** টাইপিং স্কিল এবং স্পিড বাড়ানো ইত্যাদি।

 

টোফেল পরীক্ষা সহায়ক গ্রন্থসমূহ

 ** ব্যারনস টোফেল

** টোফেল ক্লিভস টেস্ট প্রিপারেশন-সাইকেল এ পায়েল

** ক্যামব্রিজ প্রিপারেশন ফর দ্যা টোফেল টেস্ট

** টোফেল প্রিপারেশন গাইড-সি পায়েল

** জেনিংস টোফেল

** সিডি: ১) ক্যাপলান টেস্ট, ২) পিটারসন টোফেল টেস্ট ইত্যাদি।

 

বিঃদ্রঃ ইনফোটির তথ্যগুলো ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহ করা হয়েছে।সময়ের সাতে তথ্যে বর্তমান পরিবর্তন হতে পারে। তাই আপডেট তথ্য জানতে অফিসিয়াল সাইটে ভিজিট করুন।


শিক্ষাসংক্রান্ত তথ্য আরো জানুন:

বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিস বা বিসিএস ক্যাডার কি?

ফুলব্রাইট স্কলারশিপ কি? যোগ্যতা ও আবেদন প্রক্রিয়া কি?

অনলাইন স্কুল কিভাবে করবেন?

একাডেমিক তথ্য জানতে ভিজিট করুন এখানে

কোন মন্তব্য নেই:

Blogger দ্বারা পরিচালিত.